অপরাধ রাজশাহী

রেলসেতুর গার্ডারে ধাক্কা লেগে নিহত-১ আহত-২

imagesএসএস মিঠু , জয়পুরহাট : জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার হলহলিয়া রেল সেতুর গার্ডারে ধাক্কা খেয়ে ফারুক (২৫) নামের এক ট্রেনযাত্রী নিহত ও দু’জন আহত হয়েছে। শুক্রবার রাতে নিলফামারী থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী আন্তঃনগর নীল সাগর ট্রেনে এ দূর্ঘটনা ঘটে। নিহত ফারুক জেলার ক্ষেতলাল উপজেলার দৌলতপুর গ্রামের আব্দুস ছালামের ছেলে।

জানা গেছে,ক্ষেতলাল উপজেলার দৌলতপুর গ্রামের ফারুক হোসেন তার চাচাতো ও ফুফাতো ভাই রাশেদ ও সবুজকে সাথে নিয়ে রিক্সা চালানোর জন্য শুক্রবার রাতে ঢাকায় রওনা দেয়। তারা আক্কেলপুর ষ্টেশনে নীলসাগর ট্রেনের ছাদে ওঠে। ট্রেন ষ্টেশন ছাড়ার পর হলহলিয়া রেলসেতুর গার্ডারের সাথে তাদের ধাক্কা লাগলে তিলকপুরের কাছে গিয়ে সবুজ ছাদ থেকে পরে যায়। আর রাশেদ আহত হয়ে ট্রেনের ছাদে থাকলেও ফারুক সেখানেই মারা যায়। এ অবস্থায় ট্রেন টাঙ্গাইলে যাবার পর রাশেদ সেখানে নেমে হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়িতে আসলে দুপচাচিয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আর তিলকপুরে অচেতন অবস্থায় সবুজের পাশে পড়ে থাকা মোবাইল ফোন থেকে খবর পেয়ে বাবা জইমদ্দিন উদ্ধারের পর তাকেও বগুড়ার দুপচাঁচিয়া উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করে।

হাসপাতালের চিকিৎসক আরিফুল হক জানান,‘সবুজের অবস্থা খুব একটা ভাল নয়,তার দুটি দাঁত ভেঙ্গে গেছে। মাথা ও ডান গালে প্রচন্ড আঘাত লেগে ফুলে গেছে’। অবস্থার অবনতির কারণে তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

তবে এ দূর্ঘটনার বিষয়ে আক্কেলপুর ষ্টেশন মাষ্টার ও বগুড়ার সান্তাহার রেলওয়ে পুলিশ কোন তথ্য জানাতে না পারলেও আহত রাশেদ জানায়, তারা তিনজন একসাথে আক্কেলপুরে ট্রেনের ছাদে ওঠে ঢাকা রওনা দেন। কিন্তু ট্রেন ছাড়ার কিছুক্ষণ পরই হলহলিয়া সেতুতে তাদের দূর্ঘটনা ঘটে। কিছু দুর যাবার পর সবুজ ছাদ থেকে পড়ে যায়। আর ফারুক ছাদেই মারা যায়।