সারাদেশ হটনিউজ স্পেশাল

দিনাজপুরে প্রতারণার শিকার স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যা, আটক ১

হটনিউজ ডেস্ক:

দিনাজপুরের খানসামায় নিজ ধর্মীয় পরিচয় গোপন রেখে যুবকের প্রতারণার শিকার হয়ে প্রেমিকা আত্মহত্যা করেছেন। পরে লাশ উদ্ধারের পর জব্দকৃত আলামত, মোবাইল ফোনের বার্তা আদান প্রদান ও কথোপকথনের সূত্র ধরে অনুসন্ধান চালিয়ে কথিত প্রেমিক রিপন ইসলাম নামে এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

আটক রিপন ইসলাম (২৬) খানসামা উপজেলার ভাবকি ইউনিয়নের আগ্রা গ্রামের শাহ্পাড়ার হায়দার আলীর ছেলে। সে বিবাহিত এবং দুই সন্তানের জনক। তিনি নাম ও পরিচয় গোপন রেখে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন মেয়েকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে শারীরিক সম্পর্ক করে থাকেন বলে একাধিক অভিযোগ রয়েছে।

পুলিশ জানায়, কথিত প্রেমিক রিপন ইসলাম ছদ্মনাম বিপ্লব রায় রেখে লতা রায়ের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। এরপর দু’জনেই জড়িয়ে পরে শারীরিক সম্পর্কে। ঘটনার দু’মাস পর লতা রায় গত ১৪ আগস্ট রাত সাড়ে ১০টায় বিয়ের উদ্দেশ্যে প্রেমিকের টানে বাড়ি থেকে বের হয়ে আসেন। এরপর প্রেমিকের আসল পরিচয় জানতে পেরে চক্ষুলজ্জার ভয়ে খামারপাড়া ইউপির জোয়ার গ্রামের নিজ বাড়ির পাশে লিচু গাছে গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করেন সদ্য এসএসসি পাশ ছাত্রী লতা রায়।
এ ব্যাপারে খানসামা থানার ওসি শেখ কামাল হোসেন জানান, ওই মেয়ের লাশ উদ্ধারের পর থেকে জব্দকৃত আলামত মোবাইল ফোনের বার্তা আদান প্রদান ও কথোপকথনের সূত্র ধরে অনুসন্ধান চালায় পুলিশ। এরই প্রেক্ষিতে গত সোমবার অফিসার ইনচার্জ শেখ কামাল হোসেনের নেতৃত্বে এসআই তন্ময় বিশ্বাস ও এসআই সাইদুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে লতা রায়ের আত্মহত্যার প্ররোচণাকারী ভণ্ড প্রেমিক রিপন ইসলামকে তার নিজ বাড়ি থেকে আটক করা হয়।

তিনি আরও জানান, আটকের পর রিপন ইসলাম প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পরিচয় গোপন রেখে প্রেম ও শারীরিক সম্পর্কের কথা স্বীকার করেন। লতা রায়ের আত্মহত্যার মূল প্ররোচণাকারী রিপন ইসলামকে আটক করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও এর সাথে অন্য কেউ জড়িত আছে কি না তা তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।