চট্টগ্রাম জাতীয়

বৈরী আবহাওয়াতেও থামছে না মালয়েশিয়া যাত্রা

01965659501-5620130823103223হটনিউজ২৪বিডি.কম,কক্সবাজার, ২৩ আগস্ট : বৈরী আবহাওয়াতেও ঠেকানো যাচ্ছে না সাগরপথে অবৈধভাবে মালয়েশিয়া যাত্রা।
জীবনের ঝুঁকির পরও এক শ্রেণীর বেকার যুবক ট্রলার যোগে মালয়েশিয়ায় পাড়ি দিতে চেষ্টা চালাচ্ছে। কক্সবাজারের বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে বিজিবি, পুলিশ, কোস্টগার্ড সদস্যরা মালয়েশিয়া যাত্রাকালে প্রতিদিনই ঘটছে আটকের ঘটনা।
জানা যায়, শীত মৌসুমে সাগর পথে অবৈধভাবে মালয়েশিয়ায় মানব পাচার চলছে অনেক আগে থেকে। কিন্তু এখন শীত মৌসুম নয়। চলছে বৈরী আবহাওয়া। তারপরও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে উপকূল দিয়ে নৌপথে মালয়েশিয়ায় লোক পাচার হচ্ছে। দালালরা প্রলুব্ধ করে উপকূল দিয়ে প্রথমে ইঞ্জিন চালিত নৌকায় তোলে মালয়েশিয়া যেতে আগ্রহী মানুষকে। পরে সাগরে অবস্থানরত বড় জাহাজে তুলে দেয়া হয় তাদের।
প্রতিদিনই কক্সবাজার ও টেকনাফ উপকূল থেকে অবৈধভাবে মালয়েশিয়া যাওয়ার সময় হতদরিদ্র মানুষদের আটক করছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

বৃহস্পতিবার রাত ১টায় কক্সবাজার শহরের নুনিয়ারছড়াস্থ বাঁকখালী নদী থেকে ৩টি নৌকা যোগে এভাবে মালয়েশিয়া যাচ্ছিলেন অনেকে। এসময় স্থানীয় ২ দালালসহ যশোরের ৩৭ জনকে আটক করে কোস্টগার্ড।
এছাড়াও গত মঙ্গল ও বুধবার রাতে ৭৪ জনকে আটক করে টেকনাফ পুলিশ, বিজিবি ও কোস্টগার্ড।
সাগর পথে মালয়েশিয়া যাওয়ার পথে দালালের খপ্পরে পড়ে সব হারাচ্ছেন দেশের বিভিন্ন প্রান্তের সাধারণ মানুষ। মিথ্যা আশ্বাসে এসব দালাল মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিচ্ছে অসহায় দরিদ্র মানুষকে।

আটক হওয়া যশোরের রহিম, কমল ও সাজিদ বলেন, দালাল আমাদের ৩ লাখ টাকার বিনিময়ে প্রথমে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম। তারপর চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজার নিয়ে আসে। ২২ তলা জাহাজে করে মালয়েশিয়ায় নিয়ে যাবে বলে কক্সবাজারের বাকখালী থেকে ছোট ছোট ৩টি নৌকায় উঠায় তাদের। কিন্তু ৩দিন সাগরে ভাসার পর কোস্টগার্ডের হাতে আটক হন তারা।

আটক হওয়া আরো কয়েকজন যাত্রী জানান, ভিক্ষা করে খাব। তবুও আর কোন দিন সাগর পথে মালয়েশিয়ায় যাব না।

কোস্টগার্ড কক্সবাজার স্টেশনের ইনচার্জ মোখলেছুর রহমান হটনিউজকে জানান, হতদরিদ্র মানুষগুলোকে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে নিয়ে এসে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিচ্ছে। তবে সাগর পথে যাতে মালয়েশিয়া যেতে না পারে সেজন্য কোস্টগার্ডের টহল জোরদার করা হয়েছে।

এদিকে মানব পাচার অব্যাহত থাকলেও দালালরা থেকে যাচ্ছে ধরা ছোয়ার বাইরে। তবে এদের ধরতে তৎপরতা চলছে বলেও জানান আইনশৃংঙ্খলা বাহিনী।

কক্সবাজারের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. বাবুল আকতার হটনিউজকে জানান, সাগর পথে মালয়েশিয়া নিয়ে যাওয়ার জন্য দু’ধরণের দালাল কাজ করছে। যারা এ কাজের সাথে জড়িত তাদের তালিকা তৈরি হচ্ছে। শিগগির ব্যবস্থা নেয়া হবে তাদের বিরুদ্ধে।

তিনি আরো বলেন, জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অবৈধভাবে মালয়েশিয়া যাত্রার ক্ষেত্রে সামাজিক সচেতনতা গড়ে তুলতে জনপ্রতিনিধিদের এগিয়ে আসতে হবে। খুবই শিগগির যে পয়েন্টগুলো দিয়ে অবৈধভাবে মালয়েশিয়ায় লোকজন গমন করে ওইসব পয়েন্ট চিহ্নিত করে সচেতনতামূলক কর্মশালার আয়োজন করবে জেলা প্রশাসন।
প্রসঙ্গত, সাগর পথে এভাবে মালয়েশিয়া যাওয়ার সময় গত এক মাসে উপকূলের বিভিন্ন এলাকা থেকে বিজিবি, পুলিশ ও কোস্টগার্ড ৩০০ জনকে আটক করেছে।