চট্টগ্রাম জাতীয়

বড় বড় খানাখন্দে একাকার ফরিদগঞ্জ পৌর এলাকার বিভিন্ন সড়ক

1098Hathazari Image (2)নিজস্ব বার্তা পরিবেশক, চাঁদপুর:  বড় বড় গর্ত ও খানাখন্দে একাকার হয়ে আছে ফরিদগঞ্জ পৌর এলাকার রাস্তাগুলো। পৌর এলাকায় প্রবেশের চারটি রাস্তাই এখন চলাচলের একেবারেই অনুপযোগী। পৌর এলাকায় প্রবেশের রূপসা-ফরিদগঞ্জ সড়কের মোড়, টিএন্ডটি মোড়, মিরপুর সড়ক ও কালির বাজার-দাসপাড়া-ফরিদগঞ্জ সড়কসহ এই চারটি সড়কেরই বেহাল অবস্থা বিরাজ করছে।

বর্ষার শুরুতেই রাস্তাগুলো নষ্ট হওয়া শুরু করলেও অদ্যাবধি সংস্কারের কোনো ব্যবস্থা না নেয়ায় এমন চরম আকার ধারণ করেছে। বৃষ্টি হলেই যানবাহন চলা দূরের কথা, পায়ে হেঁটেও চলাচল করা দুস্কর হয়ে দাঁড়ায় সড়কগুলোতে। কোথাও কোথাও হাঁটু পরিমাণ কাদাপানি জমে যায়। রাস্তার মাঝখানে বড় বড় গর্ত হয়ে রয়েছে। দেখে মনে হবে কেউ মাছ চাষ করার জন্য পরিকল্পিত পুকুর খনন করেছে। এ অবস্থা বেশি দিন বিরাজ করলে রাস্তাগুলো দিয়ে যানবাহন চলাচল পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাবে। সম্প্রতি পৌর মেয়র বাসস্ট্যান্ডের যানজট নিরসন করতে নিজ উদ্যোগে রোড ডিভাইডার স্থাপন করে যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন সেভাবেই সড়কগুলো পরিকল্পিত মেরামত বা পুনঃ নির্মাণ করে ফরিদগঞ্জ উপজেলা সদরে প্রতিদিন কাজের জন্য আসা হাজার হাজার মানুষের দুর্ভোগ দূর করবেন বলে আশা করছে জনগণ।

স্থানীয় লোকজন জানায়, পৌরসভা গঠনের পর থেকেই এ রাস্তাগুলো এমন বেহাল অবস্থায় রয়েছে। মাঝে মধ্যে নামমাত্র সংস্কার করা হলেও মাস না ঘুরতেই আগের অবস্থায় ফিরে যায়। পৌর এলাকার রাস্তা হয়েও এগুলো সংস্কারে নানা অনিয়ম ও নিন্মমানের নির্মাণ সামগ্রী দিয়ে সংস্কার কাজ করা হয় বলেই এই দশা।

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক, চাঁদপুর: বড় বড় গর্ত ও খানাখন্দে একাকার হয়ে আছে ফরিদগঞ্জ পৌর এলাকার রাস্তাগুলো। পৌর এলাকায় প্রবেশের চারটি রাস্তাই এখন চলাচলের একেবারেই অনুপযোগী। পৌর এলাকায় প্রবেশের রূপসা-ফরিদগঞ্জ সড়কের মোড়, টিএন্ডটি মোড়, মিরপুর সড়ক ও কালির বাজার-দাসপাড়া-ফরিদগঞ্জ সড়কসহ এই চারটি সড়কেরই বেহাল অবস্থা বিরাজ করছে।

বর্ষার শুরুতেই রাস্তাগুলো নষ্ট হওয়া শুরু করলেও অদ্যাবধি সংস্কারের কোনো ব্যবস্থা না নেয়ায় এমন চরম আকার ধারণ করেছে। বৃষ্টি হলেই যানবাহন চলা দূরের কথা, পায়ে হেঁটেও চলাচল করা দুস্কর হয়ে দাঁড়ায় সড়কগুলোতে। কোথাও কোথাও হাঁটু পরিমাণ কাদাপানি জমে যায়। রাস্তার মাঝখানে বড় বড় গর্ত হয়ে রয়েছে। দেখে মনে হবে কেউ মাছ চাষ করার জন্য পরিকল্পিত পুকুর খনন করেছে। এ অবস্থা বেশি দিন বিরাজ করলে রাস্তাগুলো দিয়ে যানবাহন চলাচল পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যাবে। সম্প্রতি পৌর মেয়র বাসস্ট্যান্ডের যানজট নিরসন করতে নিজ উদ্যোগে রোড ডিভাইডার স্থাপন করে যে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন সেভাবেই সড়কগুলো পরিকল্পিত মেরামত বা পুনঃ নির্মাণ করে ফরিদগঞ্জ উপজেলা সদরে প্রতিদিন কাজের জন্য আসা হাজার হাজার মানুষের দুর্ভোগ দূর করবেন বলে আশা করছে জনগণ।

স্থানীয় লোকজন জানায়, পৌরসভা গঠনের পর থেকেই এ রাস্তাগুলো এমন বেহাল অবস্থায় রয়েছে। মাঝে মধ্যে নামমাত্র সংস্কার করা হলেও মাস না ঘুরতেই আগের অবস্থায় ফিরে যায়। পৌর এলাকার রাস্তা হয়েও এগুলো সংস্কারে নানা অনিয়ম ও নিন্মমানের নির্মাণ সামগ্রী দিয়ে সংস্কার কাজ করা হয় বলেই এই দশা।