অপরাধ রাজশাহী

স্বজনদের হাতে শতবর্ষী বৃদ্ধা খুনের অভিযোগ

এসএস মিঠু ,জয়পুরহাট : মাত্র ১০হাজার টাকার জন্য নিজের ছেলে,নাতি ও তার নাতবউয়ের হাতে বিন্দু বালা (১০৫) নামে এক শতবর্ষী বৃদ্ধাকে প্রান হারাতে হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।ঘটনাটি ঘটেছে জয়পুরহাটের আক্কেলপুর উপজেলার জালালপুর গ্রামে। বৃদ্ধা বিন্দু বালার নিকট থেকে ওই টাকাটি ছিনিয়ে নেবার সময় ধস্তাধ্বস্তি ও মারপিটের এক পর্যায়ে তার মৃত্যু হলে তার মুখে বিষ ফেলে দিয়ে ঘটনাটি কে কৌশলে আত্মহত্যা বলে চালানোর চেষ্টা করা হয়েছে।এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে বৃদ্ধার মৃত্যুর সঠিক কারন জানতে পুলিশ লাশটি ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে।ওই এলাকাবাসীর অভিযোগে জানা গেছে,আক্কেলপুর উপজেলার রুকিন্দিপুর ইউনিয়নের জালালপুর- হিন্দুপাড়া গ্রামে বুধবার রাত দেড়টার দিকে মৃত ভবদেব চক্রবর্তীর স্ত্রী বিন্দু বালার কাছে গচ্ছিত (জমা থাকা) থাকা ১০হাজার টাকা তার ছেলে সুদেব ওরফে দুলাল ঠাকুর, নাতি সুন্নাস ও নাতবউ জয়ন্তী বালা জোরপূর্বক ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা চালায়। বিন্দু বালা ওই টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তাদের মধ্যে ধস্তাধ্বস্তি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। 32ওই সময় বৃদ্ধার চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে তারা বাড়ির প্রধান (মূল) দরজা বন্ধ করে দেন। এরই কোন এক সময় বৃদ্ধার আকস্মিক মুত্যু ঘটে। রাত গভীর হলে তারা যোগসাজশ করে মৃত বৃদ্ধার মুখে বিষ ঢেলে দিয়ে আক্কেলপুর উপজেলা হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক বৃদ্ধা বিন্দু বালাকে মৃত ঘোষনা করলে তারা রাতেই হাসপাতাল থেকে বৃদ্ধার লাশ বাড়ি নিয়ে যায়।কিন্তু বৃদ্ধার মৃত্যু নিয়ে প্রশ্ন দেখা দেয়ায় স্থানীয়দের অভিযোগের প্রেক্ষিতে বৃদ্ধার মৃত্যুর প্রকৃত কারন খতিয়ে দেখতে পুলিশ ওই বাড়ি থেকে লাশটি উদ্ধার করে বৃহস্পতিবার বিকালে ময়না তদন্তের জন্য জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।আক্কেলপুর থানার এসআই আব্দুর রহিম জানান, মৃতা বিন্দু বালার শরীরে আঘাতের চিহ্ন দেখা গেছে। ফলে তার মৃত্যু সম্পর্কে প্রশ্ন দেখা দেয়ায় তার লাশ ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।ওই ময়না তদন্ত রির্পোট হাতে পেলেই প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে।