আন্তর্জাতিক প্রধান খবর

‘সীমান্ত বিল’ উঠছে রাজ্যসভায়

মেহেদী হাসান ,নয়া দিল্লি প্রতিনিধি : হটনিউজ ২৪বিডি.কম:

Rajjya+Savaবাংলাদেশের সঙ্গে স্থল সীমান্ত চুক্তি এবং এর আওতায় স্বাক্ষরিত প্রটোকল বাস্তবায়নে ভারতের সংবিধান সংশোধনের বিলটি সোমবার পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ রাজ্যসভায় তুলছে কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউপিএ সরকার।১৯৭৪ সালে স্বাক্ষরিত স্থলসীমান্ত চুক্তি এবং ২০১১ সালের প্রটোকল বাস্তবায়নের জন্য ভারতের সংবিধানে এই সংশোধনী আনা প্রয়োজন। ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সালমান খুরশিদের এই বিল তোলার কথা রয়েছে। এদিনের আলোচ্যসূচিতে রয়েছে এই বিল। তবে প্রধান বিরোধী দল বিজেপির পক্ষ থেকে বিলের বিরোধিতা করার আশঙ্কা রয়েছে।বিলটি পাসের জন্য ভারতীয় পার্লামেন্টের দুই কক্ষ লোকসভা ও রাজ্যসভায় দুই-তৃতীয়াংশ সদস্যের সমর্থন দরকার, যা ক্ষমতাসীন কংগ্রেসের নেই। তাই সরকারের পক্ষ থেকে বিলটি তোলা হলেও তা আটকে যাওয়ার ঝুঁকি রয়েছে।এর আগে এ বিষয়ে গত মে মাসে কংগ্রেস সরকার রাজ্যসভায় বিল তোলার উদ্যোগ নিলেও বিরোধী দলের বিরোধিতায় তা আটকে যায়।তখন দুর্নীতির অভিযোগে দুই মন্ত্রীর পদত্যাগ দাবিতে পার্লামেন্টে কোনো বিল পাস হতে দেবে না বলে বিজেপি অবস্থান জানালেও স্থল সীমান্ত চুক্তির জোরালো বিরোধিতা করে আসাম গণপরিষদের দুই সদস্য। তারা সালমান খুরশিদের হাত থেকে বিলের অনুলিপি কেড়ে নেয়ারও চেষ্টা করেন।স্থল সীমান্ত চুক্তি এবং এর আওতায় স্বাক্ষরিত প্রটোকল বাস্তবায়নের যে কোনো উদ্যোগের বিরোধিতা করার ঘোষণা দিয়েছে আসাম গণপরিষদ। প্রধান বিরোধী দল ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি)ও তাদের সঙ্গে যোগ দিয়ে এই বিলের বিরোধিতার ঘোষণা দিয়েছে।গত মাসের শেষ দিকে দিল্লি সফরে গিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী সালমান খুরশীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী দীপু মনি। তখন চুক্তি বাস্তবায়নে ভারত সরকারের সদিচ্ছার কথা জানিয়ে পার্লামেন্টের গ্রীষ্মকালীন অধিবেশনে তা উত্থাপনের ব্যাপারে মন্ত্রী আশ্বস্ত করেন মনমোহন। গত ৫ অগাস্ট থেকে পার্লামেন্টের এই অধিবেশন শুরু হয়েছে।

ওই সফরে রাজ্যসভায় বিরোধী-দলীয় নেতা বিজেপির অরুণ জেটলির সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা করেন দীপু মনি। অরুণ জেটলি সে সময় দীপু মনিকে বলেছিলেন, দলের মধ্যে আলোচনা করে তারা এ বিষয়ে জানাবেন।প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং বুধবার এই বিল নিয়ে বিজেপি নেতা এল কে আদভানি, অরুণ জেটলি ও সুষমা স্বরাজের সঙ্গে বৈঠক করলেও তাতে কোনো ফল আসেনি। বরং বিজেপি নেতারা বলেছেন, বাংলাদেশের সঙ্গে স্থল সীমান্ত চুক্তি কার্যকর করতে ভারতের সংবিধান সংশোধনের বিলে তারা সমর্থন দেবে না।গত সোমবার দিল্লিতে এক সংবাদ সম্মেলনে বিজেপি নেতা যশবন্ত সিনহা বলেন, মনমোহন সিংয়ের উচিৎ ছিল ২০১১ সালে বাংলাদেশ সফরে স্থল সীমান্ত চুক্তির প্রটোকলে সই করার আগে বিজেপির মতামত নেয়া। তা না করে কংগ্রেস এখন সমর্থন চাইছে।

স্থলসীমান্ত চুক্তি ও প্রটোকলের আওতায় ভারতের অভ্যন্তরে থাকা বাংলাদেশের সাত হাজার ১১০ একর আয়তনের ৫১টি এবং বাংলাদেশের অভ্যন্তরে থাকা ভারতের মোট ১৭ হাজার ১৬০ একর আয়তনের ১১১টি ছিটমহল বিনিময়ের কথা রয়েছে, যা নিয়ে বিজেপির আপত্তি।