জাতীয় ঢাকা প্রধান খবর

ঈদে আনন্দ না ঝামেলা

gabtoli-bg20130811183109আছাদুজ্জামান, হটনিউজ২৪বিডি.কম,ঢাকা: দিন পেরুলেই শুরু হবে জামায়াতে ইসলামীর ডাকা টানা ৪৮ ঘন্টার হরতাল। আর দিন পেরুনোর আগেই শুরু হয়ে যেতে পারে হরতালের প্রস্তুতিকালীন জ্বালাও পোড়াও। এ পরিস্থিতিতে ঈদের ছুটিতে গ্রামের বাড়িতে যাওয়া অনেকেই ঢাকা ফিরছেন আগেভাগেই। রাজধানীর গাবতলী ও সায়েদাবাদ টার্মিনাল এলাকায় এখন ঢাকামুখী মানুষের ভিড়। ব্যাংক কর্মকর্তা আরিফুল বাবা-মা’র সঙ্গে ঈদ করতে পরিবার নিয়ে গ্রামের বাড়ি ঝিনাইদহে যান ঈদের আগের দিন। তবে হরতাল আতঙ্কে ঈদের আনন্দের রেশ কাটতে না কাটতেই মাত্র দু’দিনের মাথায় তাকে সপরিবারে ঢাকায় ফিরতে হয়েছে।রোববার মধ্যরাতে গাবতলীর মাজার রোডে হটনিউজের সঙ্গে কথা হয় আরিফুলের। বিরক্তির স্বরে আরিফুল বলেন, ‘কিসের ঈদ আনন্দ। এবারের ঈদ পুরোটাই ঝামেলার। ঈদের আগের দিন সন্ধ্যায় গ্রামের বাড়ি গেছি। আর ঈদের পর একদিন থেকে ফিরে এসেছি ঢাকাতে।’আরিফুল বলেন, ‘দিন পার হলেই হরতাল। দিনের বেলা যেকোনো মুহূর্তেই ঝামেলা শুরু হতে পারে। তাই পরিবারসহ মধ্যরাতেই ঢাকা পৌঁছেছি।’রাত দুইটার দিকে মাগুরা থেকে গাবতলী পৌঁছান যাত্রাবাড়ি থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আসলাম আলী। সঙ্গে আছে স্ত্রী ও দুই ছেলে মেয়ে। হটনিউজকে জানালেন, হরতালের কারণেই আগেভাগে ঢাকা ফিরলেন। সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে কথা বলতে গেলে এ সময় অনেকে বিরক্তি প্রকাশ করেন। গাবতলীর মাজার রোডে রাত দুইটা ১৫ মিনিটের দিকে দর্শনা থেকে আসা সোনালী পরিবহনের এক যাত্রীর সঙ্গে কথা বলতে গেলে তিনি বলেন, ‘কি করবেন আমাদের কথা শুনে। আপনারা লিখলে কি লাভ হবে। রাজনৈতিক দলগুলো কি আমাদের মতো সাধারণ মানুষের দুর্ভোগের কথা চিন্তা করে। তারা আছেন তাদের ধান্ধায়।‘
নোয়াখালী থেকে ফেরা একটি বেসরকারি বিমা কোম্পানির কমকর্তা আবদুর রহিম হটনিউজকে বলেন, ‘ভাই চাকরি করি। চাকরি টিকিয়ে রাখতে রাতের ঘুম হারাম করে ঝুঁকি নিয়ে মধ্যরাতেই ঢাকায় ফিরে এসেছি।’