ঢাকা বিনোদন

সিট খালি নেই

images-sm20130810170505সানজিদা আক্তার হীরা,হটনিউজ২৪বিডি.কম,ঢাকা:ঈদে জমে উঠেছে রাজধানীর সিনেমা হল পাড়া। একদিকে নতুন সিনেমা, তার উপর ঈদের ছুটি। এ সুযোগে রাজধানীর সিনেমা হলগুলোর প্রতিটি শো-ই এখন হাউসফুল। কমতি নেই দর্শকের। প্রতিটিই শো-ই জমজমাট।ছুটি পেয়ে বেড়ানোর পাশাপাশি পরিবার পরিজন নিয়ে ছুটছেন হল পাড়ায়। তবে সদ্য মুক্তি পাওয়া রোমান্টিক ছবিগুলো বেশি মন কেড়েছে দর্শকদের। তবে নায়ক শাকিব খানের সিনেমার প্রতিই দর্শক আকর্ষণ বেশি বলে জানা গেছে।শনিবার টঙ্গীর আনারকলি সিনেমা হলে গিয়ে দেখা যায়, সেখানে কানায় কানায় পূর্ণ সন্ধ্যা সাড়ে ছটার শো-এর প্রতিটি আসন। আর বাইরে অপেক্ষমাণ আরও অনেক দর্শক।তারা জানান, ঈদের ছুটির অবসর কাটাতে আর নতুন নতুন সিনেমা দেখতেই হলে ছুটেছেন তারা।আলী হোসেন নামের এক শ্রমিক বলেন, ঢাকাতেই ঈদ কাটালাম। আজও ছুটি। এই ছুটিতে বন্ধুরা মিলে প্রিয় নায়ক শাকিব খানের সিনেমা দেখতে এসেছি।এই হলের গেটকিপার আক্তার হোসেন বলেন, নতুন ছবি এলে দর্শক বাড়ে। আর শাকিব খানের ছবি হলে তো কোনো কথাই নেই। একটা সিটও খালি যায়না। প্রতি ঈদে দর্শকদের জন্য নতুন সিনেমা আসে। তখন ভিড়ও বেশি হয়।এ হলটিতে চলছে সদ্যমুক্তি পাওয়া শাকিব খানের ‘ভালোবাসা আজকাল’ সিনেমাটি। বিরাট পর্দায় ডিজিটাল কোয়ালিটির ছবিটি যখন চলছে তখন হলে পিন পতন নীরবতা। ডিসি, রিয়ার ও পর্দার সামনে তিন কোয়ালিটির আটশ’ ২০টি আসন পূর্ণ করে বসেছেন আগ্রহী দর্শক।হল কর্তৃপক্ষও দর্শকদের ঈদের আনন্দ বাড়িয়ে দিতে যুক্ত করেছেন নতুন প্রযুক্তি। নতুন ডিজিটাল পর্দা এবং ডিজিটাল সাউন্ড সিস্টেম যোগ করে হলের পরিবেশ আরও আকর্ষণীয় করা হয়েছে। হলের বাইরে বড় অক্ষরে এ সুবিধার কথা উল্লেখ করেছেন কর্তৃপক্ষ।আনারকলি সিনেমা হলের আরেক কর্মচারী জানান, ঈদের ছুটি শেষ হলে আরও দর্শকের চাপ বাড়বে। কারণ, গ্রাম থেকে ফিরে সবাই নতুন সিনেমার স্বাদ নিতে আসবে।তিনি বলেন, এখন আর অ্যাকশন মুভি দর্শক দেখছেন না। রোমান্টিক ছবিতেই তারা মুগ্ধ হন। এজন্য তিন সপ্তাহ পর আবারো একটি রোমান্টিক সিনেমা আনা হবে।

আনারকলির মতো রাজধানীর অন্যান্য হলেও চলছে মিষ্টি গল্পের নতুন, পুরাতন রোমান্টিক সব ছবি। বলাকায়ও দেখানো হচ্ছে ‘নিঃস্বার্থ ভালোবাসা’। আর বলাকা টু-তে প্রদর্শিত হচ্ছে পুরাতন ছবি ‘জটিল প্রেম’। মিরপুরের সনি সিনেমা হলের ঈদের ছবি ‘মাই নেম ইজ খান’।

কারওয়ান বাজারে পূর্ণিমা এবং মহাখালীর শাহীন সিনেমা হলেও শাকিব খানের সিনেমার জয়-জয়কার। পূর্ণিমা হলের দর্শক সোবহান হটনিউজকে বলেন, শাকিব খানের নতুন সিনেমা দেখতে পরিবারকে (স্ত্রী) নিয়ে আসলাম। খুব ভালো লেগেছে। ঈদের আনন্দ বাড়িয়ে দিয়েছে এই সিনেমা।তার পরপরই হল থেকে বেরিয়ে আসা কলেজ ছাত্র ইকবাল রশিদ বলেন, বিনোদন একেকজনের কাছে একেকরকম। তবে ছুটি পাওয়াটাই বড়। ঈদের ছুটিতে সিনেমা দেখার একটা আলাদা মজা আছে। আমি প্রতিবছর ঈদেই সিনেমা দেখতে আসি। এবারও আসলাম। ভালো লেগেছে। পারলে অন্য নুতন ছবিগুলোও দেখতে চাই। বন্ধুরা মিলে সিনেমা দেখার আনন্দটাই আলাদা।images-sm20130810170505ফার্মগেটের আনন্দ সিনেমা হলে চলছে ‘মাই নেম ইজ খান’। সেখানেও কমতি নেই দর্শকের। আবুদল্লাহপুর থেকে আসা ছোট্ট রানা জানান, শিশুপার্ক ঘুরে শাকিব খানের সিনেমা দেখাতে হবে- মায়ের কাছে এমনই বায়না ছিল। সে কথায় বাবা-মা তাকে মাই নেম ইজ খান দেখাতে নিয়ে এসেছেন।

রানা আরও জানান, অনেক বড় পর্দায় শাকিব খানকে দেখতে খুবই সুন্দর লেগেছে। আর একটা ছবি দেখাতে আব্বাকে অনুরোধ করবে সে।

ঈদে বসুন্ধরা সিটির স্টার সিনেপ্লেক্সেও চলছে ঈদের বিশেষ আয়োজন। এবারের ঈদে দর্শকদের জন্য মোট পাঁচটি ছবি প্রদর্শনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

ছবিগুলোর মধ্যে রয়েছে অনন্ত জলিলের ‘নিঃস্বার্থ ভালোবাসা’, থ্রিডি প্রযুক্তির হিউ জ্যাকম্যান অভিনীত ‘উলভারিন’, ব্রাড পিট অভিনীত ‘ওয়ার্ল্ড ওয়ার জেড’, ‘ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস সিক্স’ এবং ‘ম্যান অব স্টিল’।

ঈদ উপলক্ষে বসুন্ধরা সিটির মার্কেটগুলো বন্ধ থাকলেও সিনেপ্লেক্সে দর্শকদের আনা গোনা থেমে নেই।

সব মিলিয়ে উৎসব, বিনোদেন, আনন্দে ভালোই কাটছে নগরবাসীর ঈদ।