জাতীয় ঢাকা ধর্ম প্রধান খবর রাজনীতি সারাদেশ

ধর্মের নামে উগ্রবাদ, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদকে প্রতিহত করা হবে – ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

হটনিউজ ডেস্ক: ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও খ্রিস্টান ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এডভোকেট শেখ মো: আব্দুল্লাহ বলেছেন, ধর্মের নামে উগ্রবাদ, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ একটি ঘৃন্য বিষয়। বাংলাদেশের মাটিতে সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদের কোন স্থান নেই। সকলের সহযোগিতায় ধর্মীয় উগ্রবাদ, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদকে প্রতিহত করা হবে। প্রতিমন্ত্রী আজ মোহাম্মদপুর, ঢাকা-এর সিবিসিবি সেন্টারে খ্রিস্টান ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের আয়োজনে “পালক-পুরোহিতগণের দক্ষতা বৃদ্ধি বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা” এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রত্যেক ধর্মের অনুসারির নিকট তাঁর ধর্ম শ্রেষ্ঠ, অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও পবিত্র বিষয়। সব কিছুর উর্দ্ধে মানব ধর্ম যা প্রতিটি ধর্মের ক্ষেত্রে সত্য। প্রতিটি ধর্মের মূল বিষয়গুলোতে অনেক সাদৃশ্য রয়েছে। সে সাদৃশ্যসমূহকে অবলম্বন করে সম্প্রীতি বৃদ্ধি করতে হবে।প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু ১৯৪৭ সালে ধর্মের ভিত্তিতে প্রতিষ্ঠিত দেশের অসারতা বুঝতে পেরেছিলেন। তিনি সকল ধর্মের অনুসারিদের জন্য বাসযোগ্য ও নিরাপদ একটি দেশের স্বপ্ন দেখেছিলেন এবং বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করেছিলেন, যেখানে সংবিধানের অন্যতম মূলনীতি হিসেবে ধর্ম নিরপেক্ষতাকে সংযোজন করেছিলেন। আর ধর্ম নিরপেক্ষতার অর্থ হল রাষ্ট্র ক্ষমতায় যারাই থাকুক না কেন তাদের দায়িত্ব হবে প্রতিটি ধর্মের অনুসারীদেরকে তাঁদের নিজস্ব মতে স্বাধীনভাবে নিজ নিজ ধর্ম পালনের পূর্ণ স্বাধীনতা ও নিরাপত্তা প্রদান করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ গড়ার নতুন স্লোগান হল, ধর্ম যার যার, উৎসব সবার- যা বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রবর্তন করেছেন। প্রতিমন্ত্রী বলেন, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় এর অংশীদার হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান, মুসলমানসহ সকল ধর্মের অনুসারীগণ। ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ন্যায় পবিত্র এ জায়গাকে আমি কোন মতেই অপবিত্র হতে দেবনা। আমি নিজে অন্যায় করব না, অন্য কাউকে অন্যায় করতে দেবনা। প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, পালক-পুরোহিতগণ খ্রিস্টান ধর্মের মূল্যবোধ প্রচার করে তরুন সমাজকে দেশ গড়ার সংগ্রামে উদ্ভুদ্ধ করবেন এবং মাদক-সন্ত্রাস-জঙ্গীবাদ বিরোধী লড়াইয়ে যুক্ত করবেন।ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা জীবনের মূল্যে হলেও বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার প্রত্যয় ঘোষনা করেছেন। ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্প্রীতির বন্দনকে সৃদৃঢ় করতে সকল ধর্মীয় জনগোষ্ঠীর কল্যাণে অসংখ্য কর্মসূচী গ্রহণ করেছে। সকলের সহযোগিতায় সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বাংলাদেশ গড়ে তুলতে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

খ্রিস্টান ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ভাইস চেয়ারম্যান মি. জুয়েল আরেং এমপি এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রশিক্ষণ কর্মশালায় আরও বক্তব্য রাখেন হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি ও সচিব নির্মল রোজারিও, ট্রাস্টি উইলিয়াম প্রলয় সমদ্দার । সভায় খ্রিস্টান ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি এবং উল্লেখযোগ্য সংখ্যক পালক-পুরোহিত অংশগ্রহণ করেন।