অপরাধ ঢাকা

আলফাডাঙ্গায় ভিজিএফের চাউল আটক নিয়ে নাটকীয়তা

 মোঃ কামরুল ইসলাম, জেলা প্রতিনিধি, ফরিদপুর: ফরিপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলায় ভিজিএফের চাউল আটক নিয়ে সারাদিন নাটকীয়তা শেষে গতকাল বুধবার ৭আগষ্ট স্থানীয় প্রভাবশালী মহলের চাপে আটককৃত চাউল ও দুই ব্যাবসায়ীকে গভীর রাতে ছেড়ে দিয়েছে প্রশাসন। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহম্মদ আবুল খায়ের জব্দ কৃত ৯৫ বস্তা ভিজিএফের চাউল ও আটককৃত ব্যাবসায়ী পলাশ কুন্ডু(৩৫) এবং বিশ্বজিৎ কুন্ডু (৩০ )কে ছেড়ে দেয়ার কথা সাংবাদিকদের কাছে স্বীকার করেন। এলাকা সুত্রে জানা যায়, আটক কৃত দুই ব্যাবসায়ী উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ভিজিএফ-ভিজিডি এর চাউল ক্রয় করে। গোপন সুত্রে জানা যায়,ক্ষমতাসিন আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মিদের চাপের মুখে প্রশাসন অবৈধ ভিজিএফ এর চাউল আটক করেও ছেড়ে দিতে বাধ্য হয়। এ ব্যাপারে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক নুরুল বাশার মিয়া বলেন,স্থানীয় প্রভাবশালী মহল download (7)ব্যাবসায়ীদের কাজ থেকে বিশাল অংকের অর্থের বিনিময় তাদের ছাড়িয়ে নিয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠ বিচার দাবি করেন।ঘটনার দিন সকাল ১১টায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহম্মদ আবুল খায়ের ও ওসি মো.গোলাম কিবরিয়া চাউল ব্যাবসায়ী পলাশ কন্ডুর গোডাউনে অভিযান চালিয়ে পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সরকারের দেওয়া দরিদ্রদের মধ্যে জনপ্রতি ১০ কেজি করে বিতরন করা ভিজিএফ এর চাউল বস্তা পরিবর্তনের সময় ৯৫ বস্তা জব্দ করে পলাশ কুন্ডু ও তার সহযোগী বিশ্বজিৎ কুন্ডু কে থানায় নিয়ে আসে। অন্য দিকে গত তিন আগষ্ট উপজেলার টগরবন্দ ইউনিয়নের ৮ বস্তা ভিজিএফ এর চাউল উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাশিয়ানী বাজার থেকে আটক করলেও এখন পর্যন্ত কোন ব্যাবস্থা গ্রহন করেনি। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাংবাদিকদের জানান,যাচাই বাছাই সাপেক্ষে ব্যাবস্থা নেয়া হবে।

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে হতদরিদ্রদের মাঝে বিতরন কৃত ভিজিএফ এর খয়রাতী চাউল নিয়ে প্রশাসনের নাটকীয়তায় এলাকায় ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে।