খুলনা সাহিত্য

২২ শ্রাবণে কোনো আয়োজন নেই শিলাইদহে

kobi-bg20130805211732ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট,হটনিউজটোয়েন্টিফোরবিডি.কম,কুষ্টিয়া: রবীন্দ্র জন্মজয়ন্তীতে (২৫ বৈশাখ) পা ফেলার মতো জায়গা থাকেনা বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কুষ্টিয়ার শিলাইদহ কুঠিবাড়িতে। পুরো কুঠিবাড়ি তখন পরিণত হয় এক মানবসমুদ্রে। অথচ করিগুরুর মৃত্যুবার্ষিকীতে থাকেনা কোনো আয়োজন।

প্রতিবারই ২২ শ্রাবণ নিভৃতে এসে অনেকটা নিভৃতেই চলে যায়। এবারো কবিগুরুর মৃত্যুবার্ষিকী কাটছে অন্যান্য বছরগুলোই মতোই খুব নীরবে।

এ বছরও কবির মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে কুঠিবাড়িতে নেই কোনো আয়োজন। এতে রবীন্দ্র ভক্ত, গবেষক এবং দর্শনার্থীদের ক্ষোভের অন্ত নেই।

তবে কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক সৈয়দ বেলাল হোসেন মনে করেন ২৫ বৈশাখ কবিগুরুর জন্মবার্ষিকীর মতো ২২ শ্রাবণ মৃত্যুবার্ষিকীতেও সরকারি উদ্যোগে অনুষ্ঠানের আয়োজন থাকা উচিত। এ ব্যাপারে তিনি সরকারের উচ্চ পর্যায়ে আলোচনা করবেন বলেও জানিয়েছেন।

কবির জীবনের অনেক গুরুত্বপূর্ণ সময় কেটেছে এই কুঠিবাড়িতে। তৎকালীন পদ্মাতীরের কুঠিবাড়ির নিরিবিলি পরিবেশে কবি জমিদারী পরিচালনাসহ সাহিত্যচর্চা করতেন।

কুঠিবাড়িতে বিশ্বকবির প্রয়াণ দিবসে কোনো আয়োজন না থা‍কায় হতাশা ব্যক্ত করেছেন কুঠিবাড়িতে বেড়াতে আসা দর্শনার্থীরা।

স্থানীয় রবীন্দ্র গবেষক সাথী নজরুল ইসলাম অবশ্য আক্ষেপ করে জানান, রবীন্দ্রনাথকে শুধু জন্মবার্ষিকীতেই স্মরণ করে ক্ষান্ত হই। এটা অত্যন্ত দুঃখজনক।

শিলাইদহ কুঠিবাড়ি দেখভালের দায়িত্বে থাকা বাকী বিল্লাহ হটনিউজকে জানালেন, কবির মহাপ্রয়াণ দিবসের আয়োজনের ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে তারা কথা বলেছেন যাতে অনুষ্ঠানের উদ্যোগ নেওয়া হয়।