খুলনা শিক্ষাঙ্গন

মেধার কাছে অভাব হার মেনেছে

Tarin Picরিপন হোসেন, যশোর থেকে :তারিনের মেধার কাছে হার মেনেছে অভাব। জীবনের সব বাঁধা অতিক্রম করে এবারের এইচএস সি পরীক্ষায় রাবেয়া শারমিন তারিন গোল্ডেন জিপিএ ৫ পেয়েছে । এসএসসি মতো এইচএসসিতেও তারিন কৃতিত্বপূর্ণ ফলাফল করে ভবিষ্যতে বিচারক হয়ে সমাজের ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করতে চান। যদিও তার এই উচ্চ শিক্ষা লাভের পথ মসৃণ নয়, তার পরও তারিণ সব বাঁধা পেরিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছাতে চান। এই জন্য তিনি সমাজের বিত্তবানদের সাহায্য ও সহযোগিতা কামনা করেছেন।

তারিন যশোর শহরের পুরাতন কসবা ঢাকা রোডের বাসিন্দা শাহিনারা বেগমের মেয়ে। তার পিতা মৃত মিজানুর রহমান। তারিন এবছর যশোর ক্যান্টনমেন্ট কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে মানবিক শাখায় গোল্ডেন জিপিএ ৫ পেয়েছে। এসএসসি পরীক্ষায়ও তারিন যশোর সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে গোল্ডেন জিপিএ ৫ পেয়েছিলেন। প্রাথমিক ও জুনিয়র বৃত্তি পরীক্ষায় তারিনের ঝুলিতে রয়েছে ২টি বড় সাফল্য। মেধাবী তারিন জানান, তার পিতা ১০ বছর আগে সড়ক দূর্ঘটনায় মারা যায়। মায়ের সামান্য চাকুরীর অর্থ দিয়ে অতি কষ্টে খেয়ে না খেয়ে তাদের সংসার চলে। পরনে দেবার মতো ভালো কাপড় তাদের জোটেনি। বড় বোন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিন্স্যান্স বিভাগের ছাত্রী। ছোট ভাই যশোর জিলা স্কুলের ছাত্র। তিন সন্তানের লেখাপড়া শেখাতে গিয়ে মা রাত দিন পরিশ্রম করেন। চাকুরীর পাশাপাশি তিনি বাড়িতে বসে সেলাই করে বাড়তি রোজগারের চেষ্টা করেন। তারিনের স্বপ্ন আইনে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করে ভবিষ্যতে সে বিচারক হতে চায়। এই জন্য সে কঠোর পরিশ্রম করতে রাজি। তার এই স্বপ্ন বাস্তবায়নে তিনি সকলের দোয়া প্রার্থী।