অপরাধ জাতীয় বরিশাল

১০ কেজির স্থলে দেয়া হচ্ছে সাড়ে সাত কেজি

OLYMPUS DIGITAL CAMERAনিজস্ব সংবাদদাতা, কলাপাড়া, ০৪ আগস্ট :কলাপাড়ায় ঈদের বিশেষ ভিজিএফ এর চাল বিতরনে ওজনে কম দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। ধুলাসার ইউনিয়নে রবিবার এই চাল বিতরণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। গোডাউন থেকে ওজনে কম দেয়া হয়। পরিবহন খরচ পাওয়া যায়না, এমনসব অজুহাত দেখিয়ে জনপ্রতি ১০ কেজির পরিবর্তে দেয়া হচ্ছে সাড়ে সাত কেজি। ধুলাসার ইউনিয়নের পশ্চিম ধুলাসার গ্রামের আশ্রাফ আলী বিশ্বাস, নয়াকাটা গ্রামের রফিক, পশ্চিম চাপলী গ্রামের সিদ্দিক জানালেন, তাদের প্রত্যেককে সাড়ে সাত কেজি করে চাল দেয়া হয়েছে। সরকারিভাবে ১০ কেজি করে ঈদের বিশেষ ভিজিএফ এর চাল দেয়ার নির্দেশনা রয়েছে। এলক্ষ্যে উপজেলার ১২ টি ইউনিয়নে ও দুইটি পৌরসভায় ২৭ হাজার আট ’শ ৫০ দরিদ্র পরিবারের জন্য দুই ’শ ৭৮ দশমিক ৫০ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সুত্রে জানা গেছে, প্রায় সাত দিন আগেই এসব চাল বিতরণের জন্য ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদের ডিও লেটার দেয়া হয়েছে। কিন্তু রবিবার শুধুমাত্র ধুলাসার ইউনিয়নের চাল বিতরণ শুরু করা হয়েছে। বাকিসব ইউনিয়নে এখন পর্যন্ত বিতরণ শুরু হয় নি। তবে এই চাল বিতরনের শুরুতেই অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। ওজনে জনপ্রতি আড়াই কেজি করে কম দেয়া হচ্ছে। সেক্ষেত্রে অন্তত ৬৯ টন চাল লোপাট হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। স্বচ্ছভাবে সঠিক ওজন করে চাল বিতরন নিশ্চিত করতে প্রত্যেকটি ইউনিয়নে একজন করে তদারকি কর্মকর্তা নিযুক্ত রয়েছেন। কিন্তু সঠিক তদারক না করায় এভাবে ওজনে চাল কম দেয়া হচ্ছে। ভুক্তভোগী লোকজন প্রশাসনের উর্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। একাধিক চেয়ারম্যান অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে জানান, কিছু কম দিতে হচ্ছে। কারণ গোডাউন থেকে বস্তা প্রতি অন্তত তিন কেজি করে চাল কম দেয়া হয়। এছাড়া পরিবহন ব্যয় পাওয়া যায় না।