অপরাধ বরিশাল

স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষন ও হত্যাকারীদের গ্রেফতার দাবী

images (1)হুমায়ুন কবির, পিরোজপুর প্রতিনিধি: পিরোজপুর সদর উপজেলার গুয়াবাড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রী অর্পিতা দাসকে ধর্ষন শেষে হত্যার সাথে জড়িত মুল আসামীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করেছে নিহত অর্পিতার মা-বাবা।

গত বৃহস্পতিবার পিরোজপুর মহিলা পরিষদ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এ সংবাদ সম্মেলনে নিহত অর্পিতার মা শিল্পি রানী দাস অভিযোগ করে বলেন, অর্পিতাকে ধর্ষন এবং হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত মূল হোতা রুবেল সেখকে গ্রেফতার করলেও পরবর্তীতে তাকে আওয়ামীলীগের স্থানীয় এক প্রভাবশালী নেতার নির্দেশে তাকে ছেড়ে দিয়েছে। অন্যদিকে এ ঘটনায় পুলিশ তার আত্মীয়সহ এলাকার নিরীহ ৩ হিন্দু যুবককে আটক করে তাদের রিমান্ডে নিয়ে নির্যাতন পর্যন্ত করেছে। সংবাদ সম্মেলনে শিল্পি রানী জানান, স্থানীয় এমপি’র কাছের লোক হিসেবে পরিচিত এবং স্থানীয় ইউপি সদস্য ওমর ফারুক এর ভাতিজা রুবেল সেখ। তার পিতার নাম লাল চান সেখ। গত ১৪ জুলাই সন্ধ্যায় বেকুটিয়া ফেরীঘাট এলাকা থেকে ডিবি পুলিশ রুবেলকে গ্রেফতার করে। কিন্তু পরবর্তীতে ওই নেতার নির্দেশে তাকে ছেড়ে দেয় পুলিশ। এদিকে রুবেলকে গ্রেফতারের পর তার চাচা পিরোজপুর সদর হাসপাতালের কর্মচারী হুমায়ুন সেখ তাদের নানাভাবে হুমকি দেয়। নিহত অপির্তার বাবা স্বপন দাস অভিযোগ করে বলেন, রুবেল ছাড়া পাওয়ার পর তাকে কুপিয়ে হত্যা করার ঘোষনা দিয়ে চলছে। তিনি জানান, মেয়ের হত্যাকারীদের বিচার চাওয়াই এখন তাদের অপরাধ হয়ে দাড়িয়েছে। তারা এখন চরম নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে বসবাস করছেন। অর্পিতার মা শিল্পি রানী আরও জানান, তার মেয়েকে ধর্ষন এবং হত্যার পেছনে রুবেল সেখ, তার ফুফাতো ভাই রমিজ এবং শওকত নামে আরও এক যুবক জড়িত। বিষয়টি পুলিশকে জানালেও পুলিশ কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না। তিনি নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে অর্পিতা ধর্ষন ও হত্যাকারীদের দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তি দাবী করেন।

সংবাদ সম্মেলনে জেলা মহিলা পরিষদের সাধারন সম্পাদিকা হেলেনা রফিক, মহিলা নেত্রী মাতোয়ারা বেগম, সামলা রহমান হ্যাপী উপস্থিত ছিলেন।