অপরাধ রাজশাহী

দুই নৈশ প্রহরীকে ছুরিকাঘাত ও জবাই করে হত্যার পর ১০ লাখ টাকা ডাকাতি

জামালপুরে-ডিবি-পরিচয়ে-ডাকাতি-৩-ডাকাত-আটকবগুড়া অফিস , ০১ আগষ্ট:বগুড়া শহরের সুত্রাপুর এলাকায় দুই নৈশ প্রহরীকে ছুরিকাঘাত ও জবাই করে হত্যা করে দূবৃত্তরা একটি ওষুধ কোম্পানীর ১০ লক্ষ টাকা ডাকাতি করে নিয়ে গেছে। নিহত নৈশ্য প্রহরীরা হলেন, বগুড়ার গাবতলী উপজেলার সুখানপুকুর এলাকার তাজুল (২৮) ও গাইবান্ধা জেলার রাসেল (২৬)। লাশ ময়না তদন্তের জন্য শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ সুপার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

জুয়েলিক ফার্মার ব্রাঞ্চ ম্যানেজার মাসুদুল হাসান জানান, সকাল ৭টায় সকালের শিপ্টে নৈশ প্রহরী রমজান আলীর কাছ থেকে ঘটনাটি জানতে পেরে তিনি অফিসে এসে দেখেন দুই নৈশ্য প্রহরীকে দূবৃত্তরা ছুরিকাঘাত ও জবাই করে হত্যার পর হিসাব বিভাগের লকার ভেঙ্গে ১০লাখ টাকা ডাকাতি করে নিয়ে গেছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে। ঘটনার সময় অফিসে কেউ ছিল না। সকালের শিপ্টের নৈশ্য প্রহরী রমজান আলী জানান, সকাল ৭টায় ডিউটি করতে এসে দেখি পকেট গেটটি খোলা । পাশের গার্ড রুমের দরজা বন্ধ । তখন তাদের ডাকতে থাকি । এক পর্যায়ে কোন সারা শব্দ না পেয়ে গার্ড রুমের দরজা খুললে তাদের রক্তাক্ত অবস্থায় মেঝেই পড়ে থাকতে দেখতে পাই। দৌড়ে ওই বাড়ির মালিককে খবর দেয়া হয়। তারাও ঘটনাস্থলে আসেন। ওই বাড়ির তিন তলার বাসিন্দা হামিদুর রহমান জানান, রাতে টুকটাক শব্দ শুনেছি। প্রতি রাতে নৈশ্য প্রহরীরা সেহেরী খাওয়ার সময় যে ধরনের শব্দ হয় সে রকম শব্দের কারণে বিষয়টি গুরুত্ব দেয়নি। এছাড়াও ওই কোম্পানীর লোকজন গাড়ি নিয়ে রাত ২ টা পর্যন্ত যাতায়াত করে থাকে। ভেবেছি হয়তো তারা রুমে কোন কাজ করছে।

পুলিশ সুপার মোজাম্মেল হক জানান, এই ঘটনায় শহরবাসীর আতংকিত হওয়ার কোন কারণ নেই। সংক্ষিপ্ত সময়ের মধ্যে অপরাধিদের ধরা হবে। গত ছয় মাসেও বগুড়া শহরে কোন ডাকাতি হয়নি। এই ঘটনা আমাদের ব্যথিত করেছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।