জাতীয় ঢাকা

সালমানকে অব্যাহতি দেয়ার আবেদন

blog-0664837001371398066আদালত প্রতিবেদক:এমপি গোলাম মাওলা রনির চাঁদাবাজির মামলা হতে ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের অন্যতম মালিক সালমান এফ রহমান ও দুই সাংবাদিককে অব্যাহতি দেয়ার আবেদন করেছে পুলিশ। রনি মিথ্যা মামলা দায়ের করেছেন বলে তার বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিলের অনুমতি চেয়েছে পুলিশ। ঢাকার মহানগর হাকিম শাহরিয়ার মাহমুদ আদনানের আদালতে গতকাল মঙ্গলবার সকালে চুড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা শাহবাগ থানার উপ-পরিদর্শক আবু জাফর। চুড়ান্ত প্রতিবেদন দেখিলাম মর্মে সত্যায়িত করে বিচারক আগামী ২১ আগস্ট শুনানির জন্য দিন ধার্য করেছেন। চুড়ান্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রনির দায়ের করা চাঁদাবাজির মামলার ঘটনাস্থলে যেয়ে ঘটনার বিষয়ে প্রত্যক্ষ সাক্ষীদের সাক্ষ্য নেয়ার চেষ্টা করি। আলামত জব্দেরও চেষ্টা করি। কিন্তু কোনও বাদীর সাক্ষ্যগ্রহণ করা সম্ভব হয়নি। তদন্ত প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, গত ২০ জুলাই ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের দুই জন সাংবাদিক এসাইনমেন্ট কাভার করতে আসে। তখন মামলার বাদী রনিসহ আরও ২০/২৫ দুই সাংবাদিককে হত্যার উদ্দেশ্যে মাইক্রোফোন দিয়ে পেটাতে থাকে। এ ঘটনায় রনির বিরুদ্ধে মামলা করেন ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের সহকারী ব্যবস্থাপক ইউনুছ আলী। এমপি রনি মামলার কাউন্টার মামলা হিসেবে বাদী হয়ে সালমান এফ রহমানসহ দুই সাংবাদিকের বিরুদ্ধে হত্যা চেষ্টার মামলা করেন। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, মামলাটি সরেজমিনে প্রকাশ্য ও স্থানীয়ভাবে তদন্ত করি। সার্বিক তদন্তকালে প্রাপ্ত সাক্ষ্য, তথ্য প্রমাণে ঘটনার পরিপার্শ্বিক বাদীর আনা অভিযোগের কোনও সত্যতা পাওয়া যায়নি। যে কারণে রনির দায়ের করা মমালার দায় হতে এজহারনামীয় আসামি ইমতিয়াজ শামীম, মহসিন মুকুল ও বেক্সিমকো গ্রুপের চেয়ারম্যান সালমান এফ রহমানকে মামলার দায় হতে অব্যাহতি দেয়ার আবেদন করছি। গত ২৫ জুলাই সাংবাদিকদের মারধরের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় গোলাম মাওলা রনির জামিন আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠায় আদালত। গত ২৪ জুলাই সাংবাদিক হত্যাচেষ্টা মামলার বাদীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে রনির জামিন বাতিল করে দেয় আদালত। একইদিনে তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে আদালত। গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির দুই ঘণ্টার মধ্যে ওই দিন তাকে রাজধানীর বাড্ডা এলাকা থেকে গ্রেফতার করে ডিবি পুলিশ। গত ২০ জুলাই শনিবার দুপুরে ইনডিপেনডেন্ট টিভি চ্যানেলের দুই সংবাদকর্মীকে পেটান আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনি। যে দুই সাংবাদিককে পেটানো হয় এরা হলেন ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের অপরাধ বিষয়ক অনুসন্ধানী অনুষ্ঠান ‘তালাশ’ এর প্রতিবেদক ইমতিয়াজ মোমিন এবং ক্যামেরাম্যান মহসীন মুকুল। ইনডিপেনডেন্ট টিভি চ্যানেলের সহকারী ব্যবস্থাপক ইউনুছ আলী গোলাম মাওলা রনির বিরুদ্ধে শাহবাগ থানায় মামলা করেন। মামলায় রনির বিরুদ্ধে দুই সাংবাদিককে হত্যার হুমকি ও মারধরের অভিযোগ আনা হয়। সংসদ সদস্য রনি ইনডিপেনডেন্ট টিভি চ্যানেলের অন্যতম মালিক সালমান এফ রহমান, দুই সাংবাদিকের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৪০ জনের বিরদ্ধে শাহবাগ থানায় মামলা করেন।