জাতীয় ঢাকা ধর্ম

আজ বিদায় নেবে মাগফেরাতের দশক

image_46_1781হটনিউজ২৪বিডি.কম,মো:লিপু মুন্সী,ঢাকা, ৩০ জুলাই : আজ মাহে রমজানের ২০তম দিন। আজ বিদায নেবে মাগফেরাতের দশক।
পুণ্য ও বরকতময় রমজানের আর মাত্র একটি দশক রয়েছে আমাদের জন্য। কাল থেকে শুরু হবে নাজাতের দশক।

ক্ষমা প্রার্থনার বিশেষ দিবস হিসেবে আজই শেষ সুযোগ। জীবনের ভুল-ভ্রান্তির কথা স্মরণ করে আজ আল্লাহর কাছে ক্ষমা চাইবার সুযোগটি গ্রহণ করুন। আজীবন সত্য ও ন্যায়ের পথে অবিচল থাকার জন্য আল্লাহর কাছে শপথ গ্রহণ করুন।

রমজানের সবচেয়ে বড় উপহার লাইলাতুল ক্বদর তালাশ করার জন্য আজকের দিনগত রাত থেকেই মুমিনগণ ই`তেকাফে রাত্রি জাগরণ করে ইবাদত-বন্দেগীতে নিজেদেরকে নিয়োজিত করবেন।

রসূল (স.) ক্বদর রাতের যে বিবরণ দিয়েছেন তা নাজাতের দশকের পাঁচটি বেজোড় রাতের মধ্যে নিহিত। তার প্রথম রাত আজ। যেহেতু বেজোড় পাঁচটি রাতের যেকোনো রাতে লাইলাতুল ক্বদর হতে পারে সে অনুযায়ী আজকের রাতটিও খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

ক্বদর রাতের ফজিলত হাজার মাস অর্থাৎ ৮৩ বছর ৪ মাস একাধারে ইবাদতের সওয়াবের চেয়েও অধিক ও জীবনের সকল গোনাহ হতে নিষ্কৃতি লাভের নিশ্চয়তা রয়েছে।

যখন রমজানের এই শেষ দশক আসতো তখন রসূল (স.) নিজে মসজিদে ই`তেকাফ করতেন। সে সময় তাঁর স্ত্রীরা ও সাহাবীরা ই`তেকাফ করতেন। একুশে রাত হতেই তাঁরা ক্বদর খুঁজতেন। রমজানের একটিমাত্র নির্দিষ্ট রাত সাতাশের রাতে কেবল লাইলাতুল ক্বদর অনুষ্ঠিত হয় না। বরং তা কখনো একুশ, কখনো তেইশ, কখনো পঁচিশ, কখনো সাতাশ আবার কখনো উনত্রিশের রাতে হয়ে থাকে।

সাহাবী আবু কিলাবাহ (রা.) বলেন, লাইলাতুল ক্বদর রমজানের শেষ দশকের বেজোড় রাতগুলোতে পরিবর্তিত হতে থাকে।

এই মহিমান্বিত রাতে কুরআন অবতীর্ণ হয়েছে যে রাতের মহিমা বর্ণনা করে একটি সূরা অবতীর্ণ হয়েছে `আমি আল কুরআন নাজিল করেছি মর্যাদাপূর্ণ রাতে। তুমি কী জানো সেই (মর্যাদাপূর্ণ) রাত কি? মর্যাদাপূর্ণ এ রাতটি হাজার মাসের চেয়ে উত্তম। এতে (ফেরেশতা ও তাদের সরদার) রূহ তাদের মালিকের সব ধরনের আদেশ নিয়ে (জমিনে) অবতরণ করে। সে আদেশ বার্তাটি হচ্ছে চিরন্তন) প্রশান্তি, ঊষার আবির্ভাব পর্যন্ত থাকে (সূরা ক্বদর ১-৫ আয়াত)।