অপরাধ রাজশাহী

শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে এক পুলিশ সদস্য আহত : মহাসড়ক অবরোধ

1511খাইরুল ইসলাম বাসিদ, পাবনা:পাবনার ঈশ্বরদীর দাশুড়িয়ায় শ্রমিক ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় এক পুলিশ সদস্য গুরুতর আহত হয়েছে। এ ঘটনায় বিক্ষুদ্ধ ট্রাক শ্রমিকরা ঈশ্বরদী-ঢাকা মহাসড়ক অবরোধ করে রাখলে ওই সড়কে প্রায় এক ঘণ্টা সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ থাকে। খবর পেয়ে ঈশ্বরদী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়। সোমবার দুপুর ১১টার দিকে ঈশ্বরদীর দাশুড়িয়া ট্রাফিক মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ট্রাক শ্রমিকদের অভিযোগ, ঈশ্বরদী থানার একদল পুলিশ মহাসড়কের বহরপুর এলাকায় বিভিন্ন যানবাহন থেকে চাঁদা আদায় করছিল। এসময় সুজন নামে দাশুড়িয়া এলাকার এক ট্রাক চালকের কাছে পুলিশ চাঁদা দাবি করে। সুজন চাঁদা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে পুলিশ তাকে মারধর করে। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে দাশুড়িয়া এলাকার শতাধিক ট্রাক শ্রমিক একত্রিত হয়ে দাশুড়িয়া ট্রাফিক মোড় এলাকা অবরোধ করে রাখে।

এসময় ঈশ্বরদী-ঢাকা এবং উত্তরবঙ্গের সঙ্গে দক্ষিণবঙ্গের সব যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

এ খবর পেয়ে থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) ইব্রাহিমের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে বিক্ষুদ্ধ শ্রমিকদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে কনস্টেবল মাসুদ রানা (৩৫) গুরুতর আহত হন। তাকে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

পরে সংঘর্ষের খবর পেয়ে ঈশ্বরদী থানার ওসি বিমান কুমার দাস অতিরিক্ত পুলিশ ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিক্ষুদ্ধ শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলে পরিস্থিতি শান্ত করেন। পরে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

এ ব্যপারে ট্রাক চালক ইউনিয়ন ঈশ্বরদী থানা শাখার সাধারণ সম্পাদক রকিবুল ইসলাম জানান, তিনি সংঘর্ষ বা অবরোধের সময় ঘটনাস্থলে ছিলেন না। তাই চাঁদা দাবির খবর তার জানা নেই।

তবে সুজন জানায়, পুলিশ তার কাছে চাঁদা দাবি করেছিল।

ওসি বিমান কুমার দাস পুলিশের চাঁদা দাবির কথা অস্বীকার করে জানান, বিষয়টি নিয়ে ভুল বোঝাবুঝি হলে বিক্ষুদ্ধ শ্রমিকেরা মহাসড়ক অবরোধ করে। পরে তাদের বুঝিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করা হলে তারা অবরোধ তুলে নেয়।