ঢাকা প্রধান খবর রাজনীতি

ওবামার আদলে জয়ের বক্তব্য : যুবলীগ

Joy_Ifterনিজস্ব প্রতিবেদক, হটনিউজ টোয়েন্টিফোরবিডি. কম:নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে সজীব ওয়াজেদ জয়ের বক্তব্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার নির্বাচনী বক্তব্যের মতো ‘উদ্দীপনামূলক’ বলে মনে করছে যুবলীগ।

সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, “তার (জয়) বক্তব্যটি ছিল বারক ওবামার নির্বাচনী বক্তব্যের আদলে।”জয়ের বক্তব্যের সমর্থনে তিনি বলেন, “শুধু সজীব ওয়াজেদ জয় নয়, প্রতিটি আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীর কাছে তথ্য আছে- আওয়ামী লীগ পুনরায় জনরায় পাবে।”তথ্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ জয়কে তরুণ প্রজন্মের ‘আইকন’ হিসেবে আখ্যায়িত করে ওমর ফারুক বলেন, যুবলীগ বাংলাদেশের তরুণ প্রজন্মকে মেধাবী, উদ্ভাবনী ও বিজ্ঞানমনস্ক আধুনিক প্রজন্ম হিসেবে গড়ে তুলতে প্রত্যয়ী। সে জন্য জয়কে প্রধান অতিথি হিসাবে ইফতার অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়।“ওই অনুষ্ঠানে জয় উদ্দীপনামূলক দূরদর্শী বক্তব্য দেন। সাম্প্রতিক কিছু জরিপের তথ্যের ভিত্তিতে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন, জনগণ আবার আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় ফেরত আনবে।”জয়ের এই বক্তব্য অনেকটা বারক ওবামার নিউ ইয়র্কে দেয়া নির্বাচনী বক্তব্যের আদলে মন্তব্য করে যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, “ওই বক্তব্যে বারাক ওবামা বলেছিলেন- আমি নিশ্চিত আমাকে আবার জনগণ জয়ী করবে।”

বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে ওমর ফারুক বলেন,জয়ের বক্তব্য দেশে-বিদেশে সমাদৃত হয়েছে। তার বক্তব্য সারা বিশ্বে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী মানুষকে উদ্দীপ্ত করেছে, অনুপ্রাণিত করেছে।“জয়ের বক্তব্যে নেতাকর্মীরা কর্মপরিকল্পনার রূপরেখা পেয়েছে। পাঁচ সিটি কর্পোরেশনে পরাজয়ের পর হতাশ নেতাকর্মীরা নতুন করে সংগঠিত হওয়ার প্রেরণা পেয়েছেন।”গত ২৩ জুলাই যুবলীগের এক ইফতার অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর ছেলে জয় বলেন, তার কাছে তথ্য আছে যে, আগামী নির্বাচনে জয়ী হয়ে আওয়ামী লীগই আবারো ক্ষমতায় আসবে।তার ওই বক্তব্যের পর বিরোধী দলের নেতারা তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখান।বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী গত শুক্রবার এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে বলেন, আগামী নির্বাচন নিয়ে সজীব ওয়াজেদ জয়ের অলীক তথ্য অসৎ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। এটা আগামী নির্বাচন নিয়ে চক্রান্তের ইঙ্গিত দেয়।তবে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে জয়ের বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিয়ে বলা হয়, দলের নিষ্ক্রিয় কর্মীদের সক্রিয় করতে পারলে আওয়ামী লীগ আবার ক্ষমতায় আসবে বলেই জয় বোঝাতে চেয়েছেন।আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব-উল আলম হানিফ শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, জয়কে নিয়ে বিএনপির নেতাদের বক্তব্য রাজনৈতিক প্রতিহিংসামূলক, অনাকাঙ্ক্ষিত ও দুর্ভাগ্যজনক।রোববার ছেলের পাশে দাঁড়িয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, তার কাছে জরিপের তথ্য আছে যে আওয়ামী লীগ আবারো ক্ষমতায় আসতে পারবে।জয়ের বক্তব্যের অন্য সব অংশ বাদ দিয়ে বিএনপি মিথ্যাচার করে বিভ্রান্তি ছড়াতে চাইছে উল্লেখ করে ওমর ফারুক বলেন, মিথ্যাচার ও বিভ্রান্তি ছড়িয়ে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টা বিএনপির পুরনো কৌশল। মিথ্যাচার ও অপপ্রচারই দলটির সম্বল।আওয়ামী লীগের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের চিত্র তুলে ধরে যুবলীগ চেয়ারম্যান বলেন, “এসব কারণে আওয়ামী লীগ যদি ক্ষমতায় আসার আশাবাদ ব্যক্ত করে তাহলে সেটা কি অন্যায়?”তিনি বলেন, তারেক জিয়ার নতুন ধারার বাংলাদেশ হবে আরো দুর্নীতি, আরো সন্ত্রাস এবং আরো জঙ্গী শাসনের ভয়াবহ রূপ। তারেক জিয়া যে বাংলাদেশের কথা বলেছেন, সেটা হলো দুর্নীতির বাংলাদেশ, অপশাসনের বাংলাদেশ।সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির শাসন আমলের বিভিন্ন অনিয়ম-দুর্নীতির চিত্রও তুলে ধরেন ওমর ফারুক।সংবাদ সম্মেলনে যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুন-অর রশিদসহ অর্ধশতাধিক নেতা উপস্থিত থাকলেও সাংবাদিকদের কোনো প্রশ্ন করার সুযোগ দেয়া হয়নি।