অপরাধ রংপুর

ছাত্রলীগ সভাপতিকে আসামী করে দুটি মামলা গ্রেফতার এক

greftar2ইকবাল হোসেন, রংপুর অফিস :রংপুরের পীরগঞ্জে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে পিটিয়ে আহত করেছে । এঘটনায় উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতিকে আসামী করে দুটি মামলা হয়েছে। পুলিশ এক ছাত্রলীগনেতাকে গ্রেফতার করেছে। মামলার খবর ছড়িয়ে পড়লে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অপসারন দাবীতে রংপুর-ঢাকা মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

উপজেলার ওসমানপুর বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারি করণের বিষয়ে স্বাক্ষর দেওয়ার জন্য চাপ দিলে উপজেলা শিক্ষা অফিসার অস্বীকার করলে সোমবার এই ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, উপজেলা সদরের ওসমানপুর বে-সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় সরকারী করণের তালিকায় না থাকায় ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ আলাওল হাদীর নিকট এ বিষয়ে জানতে চায়। এ সময় শিক্ষা কর্মকর্তা বিষয়টি পাশ কাটিয়ে যেতে চাইলে ছাত্রলীগের নেতাদের সাথে বাক বিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা শিক্ষা কর্মকর্তাকে মারপিট করে। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে পৌছলে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা তাকেও অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। এঘটনার পর উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রাশেদুন্নবীসহ ৫ জন ছাত্রনেতার বিরুদ্ধে শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ আলাওল হাদী থানায় মামলা করেন। থানায় মামলা হওয়ার খবর পেয়ে বিক্ষুব্ধ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অপসারনের দাবীতে উপজেলা সদরে বিক্ষোভ মিছিল করে । পরে তারা বিকেল ৫ টা থেকে সন্ধ্যা ৮টা পর্যন্ত রংপুর-ঢাকা মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে।

এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রফিকুৃল হক সড়ক অবরোধ তুলে নেওয়ার জন্য সেখানে গেলে ছাত্রলীগনেতাকর্মীরা তার উপরও হামলা চালায়। পরে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে। পুলিশ লাঠিচার্জ করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ছত্র ভঙ্গ করে দেয়। এসময় নবীন নামে এক ছাত্রলীগ নেতাকে পুলিশ আটক করে। অবরোধের সময় সড়কের দু’ধারে কয়েকশ যানবাহন আটকা পড়ে।

এ ব্যাপারে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রাশেদীন নবী রাশেদ জানান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ছাত্রলীগ সম্পর্কে আপত্তিকর মন্তব্য করেছেন এবং তিনি শিক্ষা কর্মকর্তাকে চাপ প্রয়োগ করে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। মারপিটের কথা তিনি অস্বীকার করেন।

উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আলাওল হাদী জানান, লোকজন না থাকলে ছাত্রলীগতোকর্মীরা আমাকে মেরে ফেলত।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রফিকুল হক জানান, তাকে ও শিক্ষা কর্মকর্তাকে মারপিট করায় দুটি মামলা করা হয়েছে ।

পীরগঞ্জ থানার ওসি জাহিদুল ইসলাম জানান দুটি মামলা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতার অভিযান চলছে।