টাঙ্গাইল সারাদেশ

টাঙ্গাইলে আন্তর্জাতিক অপহরণকারী চক্রের দুই সদস্য আটক

টাঙ্গাইলে আন্তর্জাতিক অপহরণকারী চক্রের দুই সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব। মির্জাপুর উপজেলা বাইমহাটি এলাকা থেকে এ চক্রের দুই সদস্যকে আটক করা হয়। আটক মো. কালাম ওরফে কালু মির্জাপুর উপজেলার হালপাড়া গ্রামের মৃত মজিবুর রহমানের ছেলে এবং বাইমহাটি গ্রামের মৃত ফকির উদ্দিনের ছেলে মো. জিয়াউর রহমান।

এ ব্যাপারে টাঙ্গাইল র‌্যাব-১২ এর কোম্পানি কমান্ডার মুহম্মদ মহিউদ্দিন ফারুকী মঙ্গলবার দুপুরে এক প্রেস বিফ্রিংয়ে এসব তথ্য জানান।

মহিউদ্দিন ফারুকী জানান, নারায়নগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ উপজেলার দক্ষিণ আজিবপুর গ্রামের আব্দুল কাদিরের ছেলে সুরুজ জামান গত ৪ সেপ্টেম্বর একটি লিখিত অভিযোগ করেন তার শ্যালক দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসী মাহাবুবুর রহমানকে গত ২৯ আগস্ট আন্তর্জাতিক অপহরণকারী চক্রের সদস্যরা অপহরণ করে। এরপর তাদের কাছে ৩০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়েছে। এ চক্রের সদস্য মনির হোসেন রাজুর বাড়ি মির্জাপুর উপজেলার বাইমহাটি এলাকায়। দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে মুক্তিপণের ৩০ লাখ টাকা দেয়া জন্য একটি মোবাইল নম্বর (০১৭৪২৫০৬১৫৮) দেয়া হয়।

গত ৪ সেপ্টেম্বর অপহরণকারীর চক্রের দেয়া একটি পিন নম্বর ও নির্ধারিত মির্জাপুর উপজেলা বাইমহাটি এলাকার আদালতপাড়ায় বসবাসরত আন্তর্জাতিক অপহরণকারী চক্রের দুই সদস্য মো. কালাম ওরফে কালু, মো. জিয়াউর রহমানকে মুক্তিপণের ৩০ লাখ টাকা দেয়া হয়। এসময় র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল তাদের আটক করে।

আটকের খবর পেয়ে অপহরণ মামলার ৩নং আসামি আন্তর্জাতিক অপহরনকারী চক্রের সদস্য মনির হোসেন অপহৃত মাহাবুবুর রহমানকে দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউনে ফেলে রেখে যায়।

বর্তমানে অপহৃত মাহাবুবুর রহমান কেপটাউনের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। মঙ্গলবার আটকদের বিরুদ্ধে মির্জাপুর থানায় একটি অপহরণ মামলার প্রস্তুতি চলছে। দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউন থানায় এ অপহরণের মামলা করা হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, আটকরা জিজ্ঞাসাবাদে দক্ষিণ আফ্রিকার বসবাসরত মনির হোসেন রাজুসহ তার অন্যান্য সহযোগিদের সহায়তায় আরো ১০/১২ জন বাংলাদেশি প্রবাসীকে আপহরণ করে তার প্রায় কোটি টাকার মুক্তিপণ আদায় করেছে।