জাতীয়

শেখ হাসিনার সাহসী নেতৃত্বের প্রশংসায় মাহাথির মোহাম্মদ

mahathir_29378হটনিউজ২৪বিডি.কম : বাংলাদেশেল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসী নেতৃত্বের ভূয়সী প্রশংসা করলেন আধুনিক মালয়েশিয়ার জনক ড. মাহাথির মোহাম্মদ। আজ মঙ্গলবার মালয়েশিয়ার পূত্রাজায়ায় নিজ অফিসে বাংলাদেশের কয়েকজন ব্যবসায়ীর সাথে বৈঠককালে তিনি এ প্রসংশা করেন। আধুনিক মালয়েশিয়ার জনক মাহাথির মোহাম্মদ এর পূত্রাজায়ায় ‘ফারডানা লিডারশিপ ডেভেলপমেন্ট ফাউন্ডেশনে’র কার্যালয়ে তার নিজস্ব অফিসে বাংলাদেশের এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নিজাম চৌধুরী তার স্ত্রী ডেনী চৌধুরীসহ বাংলাদেশের কয়েকজন ব্যবসায়ীর সঙ্গে বৈঠকের আয়োজন করেন মালয়েশিয়ার সাবেক সেনা প্রধান ৪ তারকা জেনারেল তানশ্রি মোহাম্মদ হাসিম হোসেইন। ৪৫ মিনিটের প্রাণবন্ত এ বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন সাবেক সেনা প্রধান জেনারেল তানশ্রি মোহাম্মদ হাসিম হোসেইন এর ছেলে আইটি ব্যবসায়ী রিয়াজ বিন হাসিম, বাংলাদেশের ব্যবসায়ী মোহাম্মদ হারুন ও তার ছেলে মামুন ইবনে হারুন ও তার মালয়েশিয়ান স্ত্রী নুর হায়াতি।

বৈঠকে মাহাথির মোহাম্মদ বলেন, আমার পক্ষে মালয়েশিয়াকে ২২ বছরে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করা যত সহজ ছিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে তা অনেক কঠিন হবে। কারণ বাংলাদেশের জনসংখ্যা ১৬ কোটি আর মালয়েশিয়ার জনসংখ্যা ২ কোটি ৭০ লক্ষ ও আয়তনের দিক দিয়ে মালয়েশিয়া ৩ গুন বড়। আমাদের মধ্যে রাজনৈতক মত পার্থক্য আছে। কিন্তু রাজনীতির নামে ভায়োলেন্স নেই। ৯০ ভাগ মুসলিম অধ্যুসিত বাংলাদেশে ইসলামের ভুল ব্যাখা দিয়ে রাজনৈতিক স্বার্থ্য হাসিলের জন্য জঙ্গী হামলা চালায় কিছু ভ্রান্ত মানুষ; যা উন্নয়নের জন্য শেখ হাসিনার ভিশন বাস্তবায়নের জন্য অন্তরায়। তবে তিনি বিশ্বাস করেন শেখ হাসিনার সাহসী নেতৃত্ব ও দৃশ্যমান উন্নয়নের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে বিশ্বের অধিকাংশ উন্নত দেশগুলো বাংলাদেশে ইতিমধ্যে বিনিয়োগ করে উন্নয়নে বিশাল ভুমিকা রাখছে।

পক্ষান্তরে মাহাথির মোহাম্মদকে নিজাম চৌধুরী জানান, বাংলাদেশকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০২১ সালে মধ্যম আয়ের দেশ ও ২০৪১ সালে উন্নত রাষ্ট্র করার জন্য নিরলস কাজ করছেন। সাম্প্রতিক বাংলাদেশে একাধিক দেশীয় জঙ্গী হামলার ঘটনায় অনেকে মনে করেছিল বিদেশী বিনিয়োগ থমকে যাবে, কিন্তু তা হয়নি জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ। গত সপ্তাহে বাংলাদেশে বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়ের ৪০০ মেগাওয়াট বিদ্যুতের একটি আন্তর্জাতিক দরপত্রে বিশ্বের ২১টি দেশের কোম্পানী অংশ গ্রহন করে। বাংলাদেশের নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মাসেতু নির্মাণে জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তে মানুষের মনবল বেড়ে যায় বহুগুণ, বিশ্ব ব্যাংক বলতে বাধ্য হয়েছে পদ্মাসেতু নিয়ে বিশ্ব ব্যাংকের সিদ্ধান্ত ভুল ছিল।