জাতীয় ঢাকা

মুজাহিদের রায় নিয়ে আন্তর্জাতিক মিডিয়া

mujahid20130718035005হটনিউজ২৪বিডি.কম,ডেস্ক রিপোর্ট,ঢাকা: একাত্তরে মানতাবিরোধী অপরাধের মামলায় জামায়াতে ইসলামীর নেতা আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের বিরুদ্ধে দেওয়া রায় নিয়ে আন্তর্জাতিক মিডিয়া গুরুত্ব দিয়ে খবর প্রকাশ করেছে। কোনো কোনো গণমাধ্যমে শীর্ষ খবর ছিল এই রায়।
এসব খবরে বলা হয়, ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় গণহত্যা, বুদ্ধিজীবী হত্যা, ধর্ষণসহ বিভিন্ন অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল ‘ইসলামপন্থি’ নেতা মুজাহিদকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন।
বিবিসি, এএফপি, এপি, রয়টার্স, আল জাজিরা, গার্ডিয়ান, ভয়েস অব আমেরিকা, ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল, টাইমস অব ইন্ডিয়া, দ্য হিন্দু, পাকিস্তান টুডে, দ্য ন্যাশন, ডন, জিও টিভিসহ বিভিন্ন দেশের টেলিভিশন, পত্রিকা ও সংবাদ মাধ্যমে এ সংক্রান্ত খবর স্থান পেয়েছে অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে।
এসব খবরে রায়কে কেন্দ্র করে হরতাল এবং সহিংসতার কথাও তুলে ধরা হয়েছে। ‘বাংলাদেশি ইসলামিক টু বি এক্সিকিউটেড’ শিরোনামে ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়, জামায়াতে ইসলামীর শীর্ষ নেতা আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদের বিরুদ্ধে গণহত্যা ও নির্যাতনসহ বিভিন্ন অভিযোগে আনা সাতটি অভিযোগের মধ্যে পাঁচটি প্রমাণিত হওয়ায় তাকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে।
১৯৭১ সালে যুদ্ধের সময় মুজাহিদ জামায়াতের ছাত্র সংগঠনের নেতা ছিলেন। এই সংগঠনটি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতা করে এবং ঐক্যবদ্ধ পাকিস্তানের পক্ষে কাজ করে।
বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর জামায়াতের অন্য নেতাদের মতো তিনিও আত্মগোপন করেন। ১৯৭৭ সালে সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে জেনারেল জিয়াউর রহমান ক্ষমতায় আসার পর আবার তারা প্রকাশ্যে আসেন। পরে বিএনপি নেতৃত্বাধীন সরকারে মুজাহিদ মন্ত্রী হন।
বার্তা সংস্থা এপি জানিয়েছে, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে অপহরণ ও হত্যার অভিযোগে বাংলাদেশের একটি বিশেষ ট্রাইব্যুনাল দেশটির একটি ইসলামী দলের সিনিয়র নেতাকে বুধবার মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে। রাজধানী ঢাকার এক জনাকীর্ণ আদালতকক্ষে আসামি আলী আহসান মুজাহিদের উপস্থিতিতে রায় ঘোষণা করা হয়।
গণমাধ্যমটিতে শিরোনাম করা হয় ‘বাংলাদেশ: বিরোধীদলের নেতার মৃত্যুদণ্ড’।
বার্তা সংস্থা এএফপি খবরের শিরোনাম করেছে ‘বাংলাদেশ ইসলামিস্ট লিডার অর্ডার্ড হ্যাংড ফর ওয়ার ক্রাইমস’। এতে বলা হয়, ১৯৭১ সালে মুজাহিদ জামায়াতের ছাত্র সংগঠনের নেতা এবং আলবদর বাহিনীর নেতা ছিলেন।
পাকিস্তান যুদ্ধে হেরে যাচ্ছে বিষয়টি স্পষ্ট হওয়ার পর অনেক বুদ্ধিজীবীকে তাদের বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে গিয়ে হত্যা করা হয়। মুজাহিদের বিরুদ্ধে হত্যা, নির্যাতনের পাঁচটি অভিযোগ প্রমাণ হয়েছে।
‘১৯৭১ সালের যুদ্ধাপরাধের জন্য বাংলাদেশে ইসলামপন্থী নেতার মৃত্যুদণ্ড’ শিরোনামের খবরে বার্তা সংস্থা রয়টার্স ছেপেছে- বুধবার বাংলাদেশের যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনাল এক শীর্ষস্থানীয় ইসলামপন্থী নেতাকে অভিযুক্ত করে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে। তার সমর্থকরা দেশের বিভিন্ন স্থানে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে জড়াচ্ছে।
জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়েচ ভেলে তাদের খবরে বলে, বাংলাদেশে প্রতিপক্ষের এক ইসলামী দলের নেতাকে একাত্তরের স্বাধীনতা যুদ্ধে সংঘটিত অপরাধের জন্য ফাঁসির রায় দেওয়া হয়েছে। গণহত্যাসহ পাঁচটি অভিযোগে আলী আহসান মুজাহিদকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।
দুবাইভিত্তিক সংবাদমাধ্যম গাল্‌ফ নিউজ ‘যুদ্ধাপরাধের জন্য বাংলাদেশে ইসলামপন্থী নেতার ফাঁসি’ শিরোনামের সংবাদে জানায়, ৬৫ বছর বয়সী মুজাহিদকে পাঁচটি অভিযোগে সাজা দিয়েছে সমালোচিত আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল, যার মধ্যে হত্যা ও অপহরণও রয়েছে।
এতে আরো বলা হয়, কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে ঢাকার জনাকীর্ণ এক আদালতকক্ষে তিন বিচারকের প্যানেলের উপস্থিতিতে বিচারপতি ওবায়দুল হাসান মুজাহিদ ‘গলায় ফাঁসি দিয়ে’ মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেন।
আল-জাজিরা খবর প্রকাশ করেছে বাংলাদেশের একটি আদালত দেশটির বৃহত্তম ইসলামী দলের এক সিনিয়র নেতাকে ১৯৭১ সালে পাকিস্তানের সঙ্গে স্বাধীনতা যুদ্ধ চলাকালে সংঘটিত যুদ্ধাপরাধের জন্য মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে।