অপরাধ ঢাকা

নরসিংদীতে এবার স্কুলছাত্র খুন

download (1)নরসিংদী প্রতিনিধি:নরসিংদীতে কলেজ ছাত্র প্রদীব সাহা হত্যাকান্ডের রেস কাটতে না কাটতেই এবার খুন হয়েছে স্কুলছাত্র ফয়সাল। গত সোমবার রাত ৯টায় নরসিংদীর শহরের টাউয়াদী মহল্লায় প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে ব্রাহ্মন্দী কে.কে এম.সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্র শহিদুজ্জামান ফয়সালকে। এ নিয়ে গত আড়াই মাসে নরসিংদীতে খুন হয়ে ৫ জন।

এদিকে একের পর এক হত্যাকাণ্ডে স্কুল-কলেজের ছাত্র, শিক্ষক ও অভিভাবকসহ সব শ্রেণীপেশার মানুষের মধ্যে ব্যাপক উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা ও আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে। জেলা পুলিশ কোনোক্রমেই অব্যাহত হত্যাকাণ্ড বন্ধে কোনো কার্যকর ভূমিকা পালন করতে পারছে না। জানা গেছে, নরসিংদী এলজিইডি অফিসের কর্মচারী ও নরসিংদী সদর উপজেলা ডরমিটরির বাসিন্দা আবদুস সামাদের ছেলে ফয়সাল এলাকার পারিপাশর্বিকতার কারণে জড়িয়ে পড়ে টিনএজ অপরাধী দলের সঙ্গে। এলাকার কয়েকটি সন্ত্রাসী গ্র“পের দলাদলিকে কেন্দ্র করে সোমবার রাতে ফয়সালের বন্ধু সানি মোবাইল ফোনে তাকে ডেকে নিয়ে যায় পাশের মহল্লা টাউয়াদীতে। সেখানে ওত পেতে থাকা জুয়েল-মাসুম বাহিনীর সন্ত্রাসীরা তাদের ওপর হামলা চালায়। ফয়সাল কিছু বুঝে ওঠার আগেই সন্ত্রাসীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার মাথায় কোপ মারে। এতে তার মাথার মগজ ছিটকে বেরিয়ে যায়। সঙ্গে সঙ্গে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে সে নীরব নিথর হয়ে যায় তার দেহ। এ সময় আশপাশের লোকজন দৌড়ে এসে তাকে উদ্ধার করে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। অপরদিকে গুরুতর আহত তার বন্ধু সানিকে প্রথমে সদর হাসপাতালে ও পরে ঢাকায় পাঠানো হয়। মঙ্গলবার ফয়সালের লাশ ময়নাতদন্ত ও নামাজে জানাজা শেষে শহরের গাবতলী গোরস্তানে দাফন করা হয়। এ ব্যাপারে নরসিংদী সদর মডেল থানায় একটি হত্যামামলা করা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

উল্লেখ্য, গত ৩ জুলাই কলেজছাত্র প্রদীপ দাসকে শহরের পশ্চিমকান্দাপাড়া থেকে অপহরণ করে দত্তপাড়া এলাকায় নিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করে নদীতে ফেলে দেওয়া হয়। এর আগে গত ২৬ মে একই বিদ্যালয়ের প্রথম শ্রেণীর ছাত্র হাসিবুল হাসান অয়নকে অপহরণ করে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। এর ৪ দিন পর ৩১ মে ব্রাহ্মন্দী কে.কে এম সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে মাসুদ রানা নামে এক কলেজছাত্রকে ঢাকা থেকে অপহরণ করে এনে নৃশংসভাবে হত্যা করে সন্ত্রাসী বাহিনী। গত ২৯ জুন রাতে নরসিংদী সদর উপজেলার আলোকবালী গ্রামের ৭০ বছর বয়সী বৃদ্ধ হাজী লিয়াকত আলীকে ঘুমন্ত অবস্থায় কুপিয়ে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা।