জাতীয় ঢাকা রাজনীতি

এমএ গনিকে অবাঞ্জিত ঘোষনা: ইউরোপ আওয়ামী লীগে বিরোধ প্রকাশ্যে

indexনিজস্ব প্রতিবেদক,হটনিউজ২৪বিডি.কম: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সর্ব ইউরোপিয়ান শাখার দলীয় বিরোধ প্রকাশ্য রূপ নিয়েছে। একদিকে আছেন সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সভাপতি অনীল দাশ গুপ্ত অন্যদিকে সাধারণ সম্পাদক এমএ গনি। ইউরোপের বিভিন্ন দেশে গঠিত আওয়ামী লীগের কমিটিসমূহের মধ্যেও এ বিরোধ ছড়িয়ে পড়েছে। ঘটছে বহিস্কার ও পাল্টা অবাঞ্জিত ঘোষনার ঘটনা।
দলীয় গঠনতন্ত্র বিরোধী তৎপরতা, অর্থের বিনিময়ে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে আওয়ামী লীগের একাধিক কমিটি গঠন, দলীয় ফোরামে আলোচনা না করে দল থেকে নেতাকর্মীদের বহিস্কার ,আর্থিক সুবিধা নেয়া সহ বিভিন্ন অভিযোগে সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ গনির বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন ইউরোপের বিভিন্ন দেশের দলীয় নেতারা। একাধিক প্রতবিাদ সভা ও সংবাদ সম্মেলনে পরিস্থিতি তুলে ধরেছেন তারা। আগস্ট মাসের মধ্যে দল থেকে বহিস্কার করা নেতাদের বহিস্কারাদেশ প্রত্যাহার না করা হলে এমএ গনির বিরুদ্ধে পাল্টা ব্যবস্থা নেয়ার ঘোষনা দেয়া হয়েছে।ইউরোপ আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা গেছে ,সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ গনি, দলীয় কোন সভা না করেই সম্প্রতি ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের সভাপতি লিংকন মোল্লাকে দল থেকে বহিস্কার করেছেন। সেখানে সাবেক এক বিএনপি নেতাকে সভাপতি করা হয়েছে। বহিস্কারাদেশের প্রতিবাদ করে লিংকন মোল্লা পাল্টা এমএ গনিকে ডেনমার্কে অবাঞ্জিত ঘোষনা করেছেন। সূত্র জানায় দলীয় ফোরাম ও সভাপতির সঙ্গে আলোচান না করেই এমএ গনি স্পেন আওয়ামী লীগে তার পছন্দের লোক দিয়ে নতুন কমিটি করে দিয়েছেন। গ্রীস আওয়ামী লীগের আগের কমিটি বাতিল করে দলীয় কোন কাউন্সিল না করে সেখানে এডহক কমিটি করা হয়েছে। একই ভাবে নরওয়ে,সুইডেন ও আয়ারল্যান্ডে তার ইচ্ছেমত কমিটি করে দিয়েছেন।সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ গনির স্বৈচ্ছাচারিতার বিরুদ্ধে বাংলাদেশে অবস্থানকারী ইউরোপের বিভিন্ন দেশের দলীয় নেতৃবৃন্দ গতকাল ঢাকার বেইলি রোডে সংবাদ সম্মেলনে করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জিএম কিবরিয়া। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয় আমরা সংগঠনের সভাপতি অনীল দাশ গুপ্তের নির্দেশে পরিস্থিতি তুলে ধরার জন্য সংবাদ সম্মেলন করছি। লিখিত বক্তব্যে জিএম কিবরিয়া বলেন, এমএ গনির সংগঠন বিরোধী অনৈতিক কার্যকলাপের কারনে ইউরোপের প্রতিটি দেশে তাকে অবাঞ্জিত ঘোষনা করা হয়েছে। এমএ গনি স্বেচ্ছারভাবে নেতার্মীদের দল থেকে বজিস্কার করছেন,কমিটি বিদ্যমান থাকতে কারো সঙ্গে আলোচনা না করে বিভিন্ন দেশে কমিটি গঠন করছেন। তিনি বলেন, এমএ গনির গঠনতন্ত্র বিরোধী বহিস্কারের কোন সিন্ধান্ত আমরা মানি না।সংবাদ সম্মেলনে বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের সভাপতি বজলুর রশিদ বুলু বুলেন, সর্ব ইউরোয়িান আওয়ামী লীগের ঐক্যর স্বার্থে এমএ গনির অসাংগঠনিক পদক্ষেপ সকলকে একযোগে প্রতিহত করতে হবে।সংবাদ সম্মেলনে তুরস্ক আওয়ামী লীগের সভাপতি এমএ ফারুক প্রিন্স  ওয়ান ইলেভেনের সময়ে এমএ গনির নেতিবাচক ভূমিকার কথা তুলে ধরে বলেন, তিনি লন্ডনে বসে ইউরোপে আওয়ামী লীগকে দুর্বল করার ষড়যন্ত্র করছেন। জার্মান আওয়ামী লীগের সভাপতি বশিরউল আলম চৌধুরী আল্টিমেটাম দিয়ে বলেন, আগামী ১৪ আগস্টের মধ্যে নেতাকর্মীদের বহিস্কারদেশ প্রত্যাহার না করা হলে সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ গনিকে আজীবনের জন্য দল থেকে অব্যাহতি দেয়া হবে।

index

সংবাদ সম্মেলনে আরো ছিলেন বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের সভাপতি বজলুর রশিদ বুলু, ডেনমার্ক আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান, দক্ষিন কোরিয়া আওয়ামী লীগের সভাপতি শিমুল হাসান, বেলজিয়াম আওয়ামী লীগ নেতা নুরুজ্জামান,সর্ব ইউরোপ আওয়ামী লীগ নেতা হাসনাত মিয়া, সুইডেন আওয়ামী লীগ নেতা সিরাজুল হক খান রনা, সুইজার‌্যান্ড আওয়ামী লীগ নেতা তাজুল ইসলাম,জার্মান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ আহমেদ বাদল,স্পেন আওয়ামী লীগের নেতা জাকির হোসেন,বেলজিয়াম আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন,নরওয়ে আওয়ামী লীগের নেতা আজগর আলী প্রমূখ।চায়না আওয়ামী লীগের সভাপতি এমডি জনি অভিযোগ করেন ,চীন ইউরোপ আওয়ামী লীগের অধীনে না হলেও এমএ গনি চায়না আওয়ামী লীগের কমিটি গঠনের আগ্রহ প্রকাশ করেন ,আমরা তার প্লেনের টিকিট করে দিই এবং চীনে থাকার ব্রবস্থা করি ,যাওয়ার সময়ে তিনি হাওলাতের কথা বলে আমার কাছ থেকে ৫ হাজার ডলার নেন,পাচ বছরেও তা শোধ করেননি।ই্উরোপ আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরীন কলহের বিষয়ে জানতে চাইলে সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সভাপতি অনীল দাশ গুপ্ত বলেন, দলের ভেতরে কলহ আছে কথাটা সঠিক নয়, নেতাকর্মীরা সকলে ঐক্যবদ্ধ। তবে একজন নেতা কারো সঙ্গে আলোচনা না করে কাউকে একাএকা বহিস্কার করলে বা একটা কমিটি করলেই হয়ে যায় না। দল হচ্ছে সংগঠনিক বিষয়।

তিনি বলেন,এছাড়া শামীম হক সম্পর্কে এমএ গনির মন্তব্য নিছক তার ব্যাক্তিগত বিষয়,এর সঙ্গে আওয়ামী লীগের সম্পর্ক নেই। শামীম হক সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগে সকলের কাছ জনপ্রিয় একজন নেতা।সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ গনির কাছে বিষয়টি নিয়ে ফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঢাকায় যারা প্রতিবাদ করছে ওরা দলের কেউ না, যারা অবাঞ্জিত ঘোষনার কথা বলছে ,তাদের সঙ্গে দলের সম্পর্ক নেই। তিনি বলেন, নেত্রী বলেছেন, যারা বিদেশে থাকে তাদের নিয়ে কমিটি করতে,আমি সেটা করছি। তিনি বলেন,ওরা পারলে ইউরোপে এসে প্রতিবাদ করুক।