আন্তর্জাতিক হটনিউজ স্পেশাল

সিবিএস টিভির জনমত জরিপ,সামান্য এগিয়ে হিলারি

হিলারি ক্লিনটন, ডোনাল্ড ট্রাম্পযুক্তরাষ্ট্রের ফিলাডেলফিয়ায় গত সপ্তাহে ডেমোক্রেটিক পার্টির সফল জাতীয় সম্মেলন শেষে হিলারি ক্লিনটন ডোনাল্ড ট্রাম্পের চেয়ে জনপ্রিয়তায় সামান্য এগিয়েছেন। সিবিএস টিভি পরিচালিত সর্বশেষ জরিপে হিলারির পক্ষে সমর্থন ৪৩ শতাংশ, ট্রাম্পের ৪১ শতাংশ। ‘ব্যাটেলগ্রাউন্ড স্টেট’ নামে পরিচিত গুরুত্বপূর্ণ ১১টি অঙ্গরাজ্যে পরিচালিত জরিপ থেকে এই ফল পাওয়া গেছে। এর আগে, রিপাবলিকান সম্মেলন শেষে ট্রাম্প ৪২: ৪১ এই অনুপাতে এগিয়ে ছিলেন।
একই জরিপে ডেমোক্রেটিক পার্টির জন্য একটি খারাপ খবর রয়েছে। জরিপে অংশ নেওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে মাত্র ৪০ শতাংশের বলেছেন, আমেরিকা সঠিক পথে চলছে; আর ৪৫ শতাংশ মনে করেন দেশ ভুল পথে চলছে। উল্লেখ্য, ওবামার উত্তরসূরি হিসেবে হিলারি চলতি সরকারের কার্যক্রম এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার পক্ষে। অন্যদিকে ট্রাম্প দেশের রাজনীতির খোলনলচেই বদলে দেওয়ার পক্ষে।
এদিকে রিয়েল ক্লিয়ার পলিটিকস পরিচালিত ভিন্ন একটি জনমত জরিপ অনুসারে, অনেক মার্কিন নাগরিক এই দুই প্রার্থীর প্রতিই অসন্তুষ্ট। তাঁরা উভয়কে এড়িয়ে তৃতীয় কোনো দলের প্রার্থীকে সমর্থনের কথা ভাবছেন। এর ফলে লাভবান হচ্ছেন লিবার্টারিয়ান পার্টির গ্যারি জনসন ও গ্রিন পার্টির জিল স্টাইন। তাঁরা দুজনেই জাতীয় পর্যায়ে নিজেদের সমর্থন বাড়াতে পেরেছেন। এ মুহূর্তে গ্যারি জনসনের পক্ষে জনসমর্থন রয়েছে ৭ দশমিক ২ শতাংশ, যা গত মাসের তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ। ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রার্থিতায় অসন্তুষ্ট অনেক রিপাবলিকান নিউ মেক্সিকোর প্রাক্তন রিপাবলিকান গভর্নর জনসনের দিকে ঝুঁকছেন। সিএনএনের এক জরিপ অনুসারে, রিপাবলিকান সমর্থকদের ১৭ শতাংশ নিজ দলের প্রার্থীর বদলে জনসনের পক্ষাবলম্বন করতে পারেন।
অন্যদিকে সিনেটর বার্নি স্যান্ডার্সের সমর্থক ডেমোক্রেটিক পার্টির ক্ষুব্ধ সমর্থকেরা বিশিষ্ট চিকিৎসাবিদ জিল স্টাইনের পক্ষ নিচ্ছেন। তবে হিলারি ক্লিনটনের জন্য আশ্বস্ত হওয়ার খবর এই যে সিনেটর বার্নি স্যান্ডার্স নিজে ট্রাম্পকে পরাজিত করার লক্ষ্যে সম্ভাব্য সবকিছু করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। গত রোববার এক টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে হিলারির প্রতি তাঁর সমর্থন তিনি পুনর্ব্যক্ত করেন। বিশেষজ্ঞেরা মনে করেন, স্যান্ডার্সের কোনো কোনো তরুণ সমর্থক হয়তো কিছুতেই হিলারিকে সমর্থন করবেন না। তবে স্যান্ডার্স ও হিলারি একযোগে প্রচারণায় নামলে এই অবস্থা বদলে যেতে পারে। জানা গেছে, হিলারি ক্লিনটন ও বার্নি স্যান্ডার্স কীভাবে একযোগে কাজ করতে পারেন, তাঁদের ব্যক্তিগত প্রতিনিধিরা সে বিষয়ে শলাপরামর্শ শুরু করেছেন।