জাতীয় ঢাকা

হরতালের দ্বিতীয় দিনেও সহিংস জামায়াত

Hortal-0520130716034416নিজস্ব প্রতিবেদক,হটনিউজ২৪বিডি.কম,ঢাকা : হরতালের দ্বিতীয় দিনেও সারাদেশে সহিংসতা চালাচ্ছে জামায়াতে ইসলামী ও শিবির। মঙ্গলবার হরতালের দ্বিতীয় দিনে রাজধানীসহ সারাদেশে ঝটিকা মিছিল, ভাঙচুর, ককটেল বিস্ফোরণ ও গাড়িতে আগুন দিয়েছে তারা।পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়েছে কয়েকটি স্থানে। জামায়াত ও শিবিরের সহিংসতা দমনে পুলিশ বেশ কয়েকটি জায়গায় ফাঁকা গুলি করেছে ও কাঁদানে গ্যাস ছুড়েছে। তবে হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। এখন পর্যন্ত কাউকে আটকের খবর পাওয়া যায়নি।অন্যদিকে গোলাম আযমের রায় প্রত্যাখান করে গণজাগরণ মঞ্চও হরতাল পালন করছে। সকালে তারা শাহবাগ চৌরাস্তা অবরোধের চেষ্টা করলে পুলিশী বাধায় তা পণ্ড হয়ে যায়। তবে মঞ্চের নেতাকর্মীরা কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে হরতালের সমর্থনে সমাবেশ করছে।এদিকে রাজধানীর সায়দাবাদে সকালে হরতালের সমর্থনে বিক্ষোভ মিছিল বের করে শিবির। এক পর্যায়ে মিছিল থেকে কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করে তারা।পরে একটি গাড়িতে আগুন দেয়া হয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হওয়ার আগেই তারা ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পালিয়ে যায়। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গুলি ছুঁড়লেও কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।
যাত্রাবাড়ীর কাজলা এলাকার ফাতেমা নাজ পেট্রোল পাম্পের সামনে বিক্ষিভ মিছির বের করে বেশ কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে শিবির।মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এখানে শিবির কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, যাত্রাবাড়ীতে হরতাল সমর্থনে ২০/২৫ জন শিবিরকর্মী একটি ঝটিকা মিছিল বের করে। মিছিলটি পাম্পের সামনে আসামাত্রই বেশ কয়েকটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।
যাত্রাবাড়ি থানার ওসি রফিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছে। মিরপুরে সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধের চেষ্টা করেছে জামায়াতের কর্মীরা। পরে পুলিশ এসে তাদের হটিয়ে দেয়।এদিকে রাজশাহীর বোসপাড়ায় সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে অবরোধের চেষ্টা করে শিবির ক্যাডাররা। পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে।
খুলনার খালিশপুরে শিবির নেতাকর্মীরা হরতালের সমর্থনে বেশ কয়েকটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায় তারা। পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে হরতাল সমর্থকরা পালিয়ে যায়।চট্টগ্রামের চকবাজারে বিক্ষোভ মিছিল থেকে শিবিরের নেতাকর্মীরা ১০টির বেশি ককটেলের বিস্ফোরণের মাধ্যমে এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি করে। জামায়াত শিবির নেতাকর্মীরা কয়েকটি গাড়ি ভাঙ্গচুর করে ও একটি গাড়িতে আগুন দেয়।সাতক্ষীরার কালীগঞ্জে জামায়াত শিবির নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়েছে। এতে পুলিশসহ ১০ জন আহত হয়েছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জে জামায়াত শিবির নেতাকর্মীরা শহরে একটি বিক্ষোভ মিছিল করে ও সোনামসজিদ সড়ক অবরোধের চেষ্টা করে।বগুড়ায় শিবির নেতাকর্মীরা শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। মিছিল থেকে বেশ কয়েকটি টেম্পো ও সিএনজি ভাঙ্গচুর করেছে। পুলিশ শিবির নেতাকর্মীদের ধাওয়া দিলে পালিয়ে যায় তারা। জামায়াতের সাবেক আমির গোলাম আযমের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের দেয়া রায় প্রত্যাখ্যান করে দ্বিতীয় দিনের মত এ হারতাল ডেকেছে জামায়াত।
এর আগে সোমবারের হরতালে দেশের বিভিন্ন জায়গায় ব্যাপক সহিংসতা চালিয়েছে যুদ্ধাপরাধে অভিযুক্ত দলটি। এতে সাতক্ষীরায় এক আওয়ামী লীগ নেতা নিহত হয়েছেন।অপরদিকে জামায়াত-শিবিরের চার নেতাকর্মী নিহত হয়েছেন বলে দাবি করা হয়েছে।