খেলা

ড্রাগ টেস্টে ধরা গে ও পাওয়েল

6খেলাধূলা ডেস্ক: মার্কিন ¯প্রিন্টার টাইসন গে আর জ্যামাইকার আসাফা পাওয়েলের শরীরে নিষিদ্ধ ড্রাগ রয়েছে বলে পরীক্ষায় ধরা পড়েছে। ১০০ মিটার ¯প্রিন্টের ইতিহাসে বিশ্বের দ্বিতীয় দ্রুততম মানব টাইসন গেকে শুক্রবার ইউএস অ্যান্টি-ডোপিং এজেন্সি জানায়, গত মে মাসে নেয়া একটি নমুনায় নিষিদ্ধ ড্রাগের অস্তিত্ব ধরা পড়েছে। আর জুনে জ্যামাইকান চ্যামপিয়নশিপের সময় নেয়া নমুনায় সাবেক বিশ্বরেকর্ডের মালিক পাওয়েলের শরীরে নিষিদ্ধ ড্রাগ ধরা পড়ে। জ্যামাইকার আরেক অ্যাথলেট লন্ডন অলিমপিকে মেয়েদের ১০০ মিটার রিলেতে রৌপ্য পদক জেতা শেরন সি¤পসনও ড্রাগ টেস্টে উৎরাতে ব্যর্থ হন।
এ বছরের দ্রুততম মানব টাইসন গে এরই মধ্যে নিজেকে মস্কোতে অনুষ্ঠেয় অ্যাথলেটিক্স বিশ্ব চ্যাপিয়নশিপ থেকে প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। ফলে ১০০ মিটারে বিশ্বরেকর্ডধারী উসাইন বোল্টের সঙ্গে গের বহু প্রতিক্ষিত দ্বৈরথ আর দেখা হচ্ছে না বিশ্ববাসীর।
ড্রাগ টেস্টের ফল মেনে নিয়ে গে বলেন, আমি এমন কাউকে বিশ্বাস করেছিলাম যে আমাকে ডুবিয়েছে।
আশা করছি, আমি আবার দৌড়াতে পারব। কিন্তু এখন আমি যে শাস্তিই আসুক, মাথা পেতে নেব যোগ করেন তিনি।
অস্ত্রোপচারের জন্য প্রায় এক বছর র্ট্যাকের বাইরে থাকার পর ফিরে এসে দূর্দান্ত ফর্মে ছিলেন গে। ১০০ মিটারে এ বছরের সেরা তিনটি টাইমিংই তার। মার্কিন ট্রায়ালে ৯.৭৫ সেকেন্ডে দৌড়ানোর পর লুসানে ডায়মন্ড লিগ মিটে গে জিতেন ৯.৭৯ সেকেন্ডে।
জ্যামাইকার আসাফা পাওয়েল ও সি¤পসনের শরীরে নিষিদ্ধ অক্সিলোফ্রাইন পাওয়া যায়। উসাইন বোল্টের আগে ৩০ বছর বয়সী পাওয়েল ছিলেন ১০০ মিটারে বিশ্ব রেকর্ডের মালিক। তিনি এ ইভেন্টে ইতিহাসের চতুর্থ সেরা টাইমিংয়ের (৯.৭২ সেকেন্ড) অধিকারী।
আগামী মাসে মস্কোতে অ্যাথলেটিক্স বিশ্ব চ্যা¤িপয়নশিপে জ্যামাইকা দলে স্থান পেতে ব্যর্থ হওয়া পাওয়েলের এ বছরের সেরা সময় ৯.৮৮ সেকেন্ড। এক বিবৃতিতে পাওয়েল বলেন, আমি আমার পরিবার, বন্ধু-বান্ধব এবং বিশ্বজুড়ে ভক্তদের বলতে চাই আমি জ্ঞাতসারে নিয়ম ভাঙতে পারে এমন কোনো উপাদান গ্রহণ করিনি। এখন বা আগে কখনই আমি এ প্রতারণা করিনি।
জ্যামাইকার অ্যাথলেটিক্সে ড্রাগ কেলেংকারির শুরু গত মাসে যখন অলি¤িপকে মেয়েদের ২০০ মিটারে দুই বারের সোনাজয়ী ভেরোনিকা ক্যা¤পবেল-ব্রাউন ড্রাগ টেস্টে উৎরাতে ব্যর্থ হন। তাকে সাময়িকভাবে নিষিদ্ধ করেছে জ্যামাইকা কর্তৃপক্ষ।