জাতীয় ঢাকা

সংশোধন হচ্ছে স্থানীয় নির্বাচন আচরণবিধি

shanewaz-sm20130714204208সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট,হটনিউজটোয়েন্টিফোরবিডি.কম,ঢাকা: স্থানীয় সরকার নির্বাচন আচরণ বিধিমালা সংশোধনের উদ্যোগ নিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। সবশেষ পাঁচ সিটি নির্বাচনের অভিজ্ঞতা ও প্রতিবন্ধকতার আলোকে সিটি করপোরেশন নির্বাচন আচরণ বিধিমালাসহ স্থানীয় পর্যায়ের সব নির্বাচনের আচরণবিধি সংশোধন করা হচ্ছে।রোববার হটনিউজকে এসব তথ্য জানান নির্বাচন কমিশনার মো. শাহনেওয়াজ।তিনি বলেন, ‘এজন্য সম্প্রতি শেষ হওয়া পাঁচ সিটি নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং কর্মকর্তাদের কাছে তাদের মাঠ পর্যায়ের অভিজ্ঞতার প্রতিবেদন চাওয়া হয়েছে।’শাহনেওয়াজ বলেন, ‘এখন পর্যন্ত সিলেটে দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং কর্মকর্তা আজহারুল হক তার প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন। বাকিদের কাছ থেকে প্রতিবেদন পাওয়া গেলে কমিশন তা মূল্যায়নের জন্য বৈঠক করবে। এরপরই চূড়ান্ত হবে নতুন বিধিমালা।’তিনি বলেন, ‘এবারের চার সিটি নির্বাচন করতে গিয়ে ইসিকে কিছু অদ্ভুত প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হতে হয়েছে। যা মোকাবেলার জন্য প্রয়োজনীয় আইন ও বিধি ইসির ছিল না। নির্বাচন একটি চলমান প্রক্রিয়া হওয়ায় কালে কালে নতুন নতুন পরিস্থিতিতে নতুন নতুন বিধি ও আইনের প্রয়োজন হয়। তাই ইসির এ উদ্যোগ উদ্দেশ্য প্রণোদিত নয়।’তিনি জানান, নির্বাচনে ধর্মের ব্যবহার, ব্যানার ব্যবহার, বিকাশ বা ফ্লেক্সিলোডে ভোট কেনা, এক প্রার্থীর অপর প্রার্থীর চরিত্র হরণ, ব্যক্তিগত বিষদগার, আস্তিক নাস্তিক বিতর্ক, শিক্ষাগত যোগ্যতার স্থলে স্বশিক্ষিত লেখা হলে তার স্পষ্ট ব্যাখ্যা ইত্যাদি বিষয় এবার ইসিকে ভুগিয়েছে।সাবেক বিচারপতি এ কমিশনার বলেন, ‘এবারের নির্বাচনে দেখা গেল কেউই আইন মানে না। মনে হয় আইন কেবল দু’একজনের জন্য। আইনের সরাসরি প্রয়োগ করতে গেলে নির্বাচনের মাঠে হয়তো প্রার্থীই পাওয়া যাবেনা।’মো. শাহনেওয়াজ আরও বলেন, ‘ইসির কাজ যেকোনো মূল্যে একটি অবাধ, সুন্দর ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত করা। নির্বাচনকে বিঘিœত করা নয়। তাই এ কাজে সবাইকেই এগিয়ে আসতে হবে।’আইনের প্রতি সম্মান দেখিয়ে সবার প্রতি আইন মানার সংস্কৃতি গড়ে তোলারও আহ্বান জানান তিনি।