অপরাধ খুলনা

স্বামীর বাড়ি থেকে গৃহবধু তাসলিমার লাশ উদ্ধার

lash-uddhar20130609055939চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি:চুয়াডাঙ্গার তিতুদহ দক্ষিণপাড়ার স্বামীর বাড়ি থেকে গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত গৃহবধু তাসলিমা খাতুনের (২০) লাশ ময়না তদন্তের জন্য চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। গৃহবধু তাসলিমাকে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে নিহতের আত্মীয়রা।

নিহত গৃহবধু তাসলিমার ভাই ইব্রাহিম হোসেন জানান, ‘২ বছর আগে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার পিরোজখালি গ্রামের সিদ্দিক আলীর মেয়ে তাসলিমা খাতুনের বিয়ে হয় তিতুদহ দক্ষিণপাড়ার রবিউল কসাইয়ের ছেলে সাইফুল ইসলামের সাথে। তাসলিমা চার মাসের আন্তসত্ত্বা ছিল। রবিবার সকাল ১১টায় তিতুদহ পুলিশ ক্যাম্পের সাব ইন্সপেক্টর আমিনুল ইসলাম খবর পেয়ে গৃহবধু তাসলিমার স্বামী সাইফুল ইসলামের বাড়ি থেকে লাশ উদ্ধার করেন। এলাকাবাসির উদ্ধৃতি দিয়ে এস আই আমিনুল ইসলাম জানান, ঘরের আড়ার সাথে লাশ ঝুলন্ত অবস্থায় ছিল । প্রতিবেশিরা পুলিশকে খবর দিয়ে লাশ নামিয়ে রাখে। রবিবার সকাল থেকে স্বামী সাইফুল ইসলাম বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র পালিয়ে গেছে। পুলিশ তাকে খুঁজে পায়নি।

এস আই আমিনুল ইসলাম আরো বলেন, নিহতের ডান হাতে আঘাতের চিহ্ন আছে।

নিহত তাসলিমার ভাই ইব্রাহিম হোসেন আরো জানান, তাসলিমার স্বামী সাইফুল ইসলামের সাথে তার ফুফাতো বোনের পরোকীয়া সম্পর্ক ছিল। এই সম্পর্ক বাদ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয় সাইফুল ইসলাম। এজন্য সে এক লাখ টাকা দাবি করে। গত শনিবার তাসলিমার পিতা সিদ্দিকুর রহমান মেয়ে তাসলিমার শ্বশুর বাড়ি গিয়ে ৬০ হাজার টাকা দিয়ে আসে।

নিহত তাসলিমার ভাই ইব্রাহিম হোসেন দাবি করেন, ‘পরকীয়া প্রেমের কারণেই তার বোনকে হত্যা করা হয়েছে।’