আন্তর্জাতিক

ইন্দোনেশিয়ায় কারাগার ভেঙে পালাল ২শ’ বন্দি

5আন্তর্জাতিক: ইন্দোনেশিয়ার চতুর্থ বৃহত্তম শহর মেদানের একটি সুরক্ষিত কারাগার থেকে বৃহ¯পতিবার প্রায় ২শ’ বন্দি পালিয়ে গেছে। পানি ও বিদ্যুৎ ঘাটতির কারণে কারাগারের বন্দিদের প্রতিবাদ সহিংসতায় রূপ নেয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে বন্দি পালানোর এই ঘটনা ঘটে বলে পুলিশের মুখপাত্র জানিয়েছেন। ইন্দোনেশিয়ার পুলিশ মুখপাত্র বয় রাফলি আমর জানিয়েছেন, পালিয়ে যাওয়া ২শ’ বন্দির মধ্যে ১৫ জন সম্ভবত সন্ত্রাসী।
আমর বলেন, ভোর সাড়ে ৫টা থেকে বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত কারাগারে পানি ও বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থাকায় কারাবন্দিদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। তারা প্রতিবাদ জানায় এবং কারাগারের প্রধান ফটক ভেঙ্গে ফেলে। শুক্রবার দ্য জাকার্তা পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই ১৫ সন্ত্রাসীর সঙ্গে টনি টোগার নামে ২০ বছরের কারাদণ্ডপ্রাপ্ত এক সন্ত্রাসীর স¤পর্ক রয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
২০০০ সালে সুমাত্রায় চার্চে ধারাবাহিক বোমা হামলা চালানোর অভিযোগে পৃথক এক কারাগারে দণ্ড ভোগ করছেন টনি। কারাগারের ভেতরে আগুন লাগার সুযোগে বন্দিরা পালিয়ে যায়। ওই অগ্নিকাণ্ডে ২ বন্দি ও ২ কারা কর্মকর্তা নিহত হন বলে এক পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন। উত্তর সুমাত্রার রাজধানী মেদান শহরের সেনা ও পুলিশ কর্মকর্তারা এখনো পালিয়ে যাওয়া কারাবন্দিদের ধরতে অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে। মেদান কারাগারে ২ হাজার ৫শ জনেরও বেশি বন্দি রয়েছে। কিন্তু ওই কারাগারের ধারণক্ষমতা ১ হাজার ৫৪ জন। অতিরিক্ত এত বিপুল বন্দিকে ওই কারাগারে রাখায় দেশটির আইনমন্ত্রী দেনি ইন্দ্রায়ানার সমালোচনা করেছে দেশটির সংবাদমাধ্যম।