অর্থ ও বাণিজ্য চট্টগ্রাম

৮ কোটি ৭০ লাখ টাকা দৈনিক ক্ষতি

image_45487স্টাফ করেসপন্ডেন্ট চট্টগ্রাম: বিদ্যুৎ ঘাটতি মোকাবেলায় বিদ্যুৎ প্ল্যান্টে গ্যাস সরবরাহের জন্য ১৫ জুন থেকে চট্টগ্রামের আনোয়ারায় রাষ্ট্রয়ত্ত সার কারখানা চিটাগাং ইউরিয়া ফার্টিলাইজার লিমিটেডে (সিইউএফএল) গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করা হয়েছে। এতে কারখানাটিতে দৈনিক ক্ষতি হচ্ছে ২ কোটি ৭০ লাখ টাকা।

অপরদিকে একই স্থানে স্থাপিত সার কারখানা কর্ণফুলী ইউরিয়া ফার্টিলাইজারকেও (কাফকো) চলতি বছরের ৫ মে থেকে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে দেয়া হয়। এ কারখানাটিতেও দৈনিক ক্ষতি হচ্ছে প্রায় ৬ কোটি টাকা।

সবমিলে এ দুটো সার কারখানাকে প্রতিদিন ক্ষতি গুনতে হচ্ছে ৮ কোটি ৭০ লাখ টাকা। সার কারখানা দুটির ব্যবস্থাপনা পরিচালকরা এ তথ্য জানিয়েছেন।

চিটাগাং ইউরিয়া ফার্টিলাইজার লিমিটেড (সিইউএফএল) এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু জামান সরকার হটনিউজকে  বলেন, ‘গত ১৫ জুন থেকে কারখানাটি গ্যাসের অভাবে বন্ধ রয়েছে। এতে প্রতিদিন প্রায় ২ কোটি ৭০ লাখ টাকা ক্ষতি হচ্ছে। সিইউএফএল এ সার উৎপাদন করতে দৈনিক ৪৭ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস প্রয়োজন।’

কর্ণফুলী ফার্টিলাইজার লিমিটেডের (কাফকো) জেনারেল ম্যানেজার (প্রোডাকশন) নাজমুল আলম বাংলামেইলকে বলেন, ‘গত ৫ মে থেকে কারখানায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ আছে। এতে প্রতিদিন প্রায় ৬ কোটি টাকার ওপর ক্ষতি হচ্ছে।’

অন্যদিকে গ্যাসের অভাবে দীর্ঘদিন ধরে পটিয়ার শিকলবাহায় স্থাপিত ১৫০ মেগাওয়াট ও ৬০ মেগাওয়াটের দুইটি পিকিং পাওয়ার প্ল্যান্টে বিদ্যুৎ উৎপাদন বন্ধ রয়েছে।

প্রকল্পের জিএম বিজয় ভূবন দত্ত বলেন, গত বছরের ২৮ মে থেকে এ দুটি পিকিং পাওয়ার প্লান্ট বন্ধ রয়েছে। এ দুটি প্লান্ট চালাতে প্রায় ৫০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাসের প্রয়োজন হয়।

তিনি আরো বলেন, বিদ্যুৎ কেন্দ্র দুটি দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ থাকায় এর যন্ত্রপাতির কর্মক্ষমতাও কমে যাচ্ছে। এতে আর্থিক ক্ষতি ক্রমেই বাড়ছে।

এদিকে দুটি বৃহৎ সার কারখানা বন্ধ করে বিদ্যুৎ উৎপাদনে প্লান্টগুলোতে গ্যাস সরবরাহ করলেও কাঙ্খিত বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে না। ফলে বিদ্যুতের ভয়াবহ লোডশেডিংয়ে অতিষ্ট হয়ে উঠেছে চট্টগ্রামবাসী।