ঢাকা প্রধান খবর

পদ্মায় বিলম্ব: মুহিতকে দুষলেন কাদের

muhith-obaidul-edসাভার প্রতিনিধি, হটনিউজ টোয়েন্টিফোরবিডি. কম:পদ্মা সেতু নিয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের অবস্থানকে ‘অবাস্তব’ আখ্যায়িত করে নির্মাণ কাজ শুরুতে বিলম্বের জন্য তাকেই দায়ী করেছেন যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। চীনের প্রস্তাব গ্রহণ সম্ভব না: মুহিত সরকারের অন্যতম নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি পদ্মা সেতু নির্মাণে চীনের প্রস্তাব মুহিত নাকচ করে দেয়ার পরদিন কাদেরের এই বক্তব্য এলো। শুক্রবার দুপুরে আশুলিয়ার নবীনগর-কালিয়াকৈর মহাসড়কের উন্নয়ন কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন করার পর তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “অর্থমন্ত্রীর অবাস্তব অবস্থান সময়মতো পদ্মার মূল সেতুর কাজ শুরু করার পথে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিল। আমারা সময়মতো পদ্মার মূল সেতুর কাজ শুরু করতে পারিনি, সেটা তার অবাস্তব অবস্থানের কারণে।”কাদেরের ভাষায়, অর্থমন্ত্রী মাঝেমধ্যেই কিছু ‘সুইপিং রিমার্কস’ করেন, যা মানুষকে ‘হতাশ’ করে।

যোগাযোগ মন্ত্রীর উপলব্ধি, “আমাদের মতো ব্যক্তিদের অনেক ভেবে চিন্তে দায়িত্বশীল মন্তব্য করা উচিত।”
পদ্মা সেতুতে রাশিয়া ও চীনের প্রস্তাব ‘গ্রহণযোগ্য নয়’ বলে অর্থমন্ত্রীর বক্তব্যের সমালোচনা করে যোগাযোগ মন্ত্রী বলেন, প্রস্তাব দেয়ার ‘এক দিন যেতে না যেতেই’ অর্থমন্ত্রীর এ ধরনের মন্তব্য জনগণকে ‘হতাশ’ করে।
যোগাযোগমন্ত্রী মঙ্গলবার সাংবাদিকদের জানান, চীনের রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান চাইনিজ পলি টেকনোলজি কর্পোরেশন পদ্মা সেতু নির্মাণে ২৪০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করতে আগ্রহী। এ বিষয়ে চলতি মাসেই সমঝোতা স্মারক সই করতে চায় তারা।চীনের প্রস্তাব বিশ্ব ব্যাংকের চেয়ে খারাপ কিছু হবে না বলেও সে সময় মন্তব্য করেন যোগাযোগ মন্ত্রী।

তবে এর দুই দিনের মাথায় অর্থমন্ত্রী মুহিত সাফ জানিয়ে দেন, চীনের ওই প্রস্তাব গ্রহণ করা সরকারের পক্ষে সম্ভব নয়।“চীনের প্রস্তাব বা এ ধরনের কোনো প্রস্তাব যদি আমরা গ্রহণ করি তাহলে আমাদের আন্তর্জাতিক দরপত্র প্রত্যাহার করতে হবে। আন্তর্জাতিক দরপত্রের মাধ্যমেই এ প্রকল্প বাস্তবায়ন বাংলাদেশের জন্য সবচেয়ে ভাল।”
৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতু নির্মাণের অর্থায়ন নিয়ে বিশ্ব ব্যাংকের সঙ্গে দীর্ঘ টানাপোড়েনের পর দাতা সংস্থাটিকে ‘না’ করে দিয়ে গত জানুয়ারিতে নিজস্ব অর্থায়নেই প্রকল্প বাস্তবায়নের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। গত মাসের শেষে সেতুর মূল কাঠামো নির্মাণে আন্তর্জাতিক দরপত্রও ডাকা হয়।এর আগে পদ্মার অর্থায়ন নিয়ে অনিশ্চয়তার মধ্যে মুহিত যখন বিশ্ব ব্যাংককে রাখার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিলেন, এ প্রকল্প বাস্তবায়নে মালয়শিয়ার সঙ্গে একটি সমঝোতা স্মারকে সই করে চুক্তির পথে অনেকটা এগিয়েও গিয়েছিলেন কাদের। শুক্রবার তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “অর্থমন্ত্রী শিক্ষিত মানুষ, উনি যখন নিজের আত্মজিবনী লিখবেন তখন হয়তো উনি স্বীকার করবেন যে উনার অবাস্তব অবস্থানের কারণেই সময়মত পদ্মা সেতুর কাজ শুরু করা যায়নি।তবে পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু করতে এখন আর কোনো সমস্যায় পড়তে হবে না বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি।
“বাজেটে ৮ হাজার কোটি টাকা বরাদ্ধ রাখা হয়েছে। আগামী এক বছর অর্থ সমস্যায় পড়তে হবে না।”পাঁচ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের পরাজয় প্রসঙ্গে কাদের বলেন, এই পরাজয় নেতাকর্মীদের মনোবলে ধাক্কা দিলেও তা ‘সাপে বর’ হয়েছে।দলের সবাইকে ভুল ত্রুটি সংশোধন করে এগিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে ক্ষমতাসীন দলের সভাপতিমণ্ডলীর এই সদস্য বলেন, “আওয়ামী লীগ জানে কীভাবে ঘুরে দাঁড়াতে হয়।