জাতীয় ঢাকা সারাদেশ

বৃষ্টিপাতে বন্যা পরিস্থিতির অবনতির আশঙ্কা

weather_sm20130712042953হটনিউজটোয়েন্টিফোরবিডি.কম,ঢাকা: আগামী সপ্তাহের শুরুতেই টানা বর্ষনের আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। একই সঙ্গে উজানে অব্যাহত বর্ষনের ফলে পদ্মা ও মেঘনায় পানি বাড়ার আশঙ্কা করছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। এ পরিস্থিতিতে দেশের চলমান বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতির আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা।শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, খুলনা, বরিশাল ও চট্টগ্রাম বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রাজশাহী, রংপুর, ঢাকা ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি থেকে ভারি বৃষ্টিপাত হতে পারে।একই সঙ্গে এ পূর্বাভাসে সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস পেতে পারে বলেও আবহাওয়ার অধিদফতরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে শুক্রবার একথা বলা হয়।আগামী ৭২ ঘণ্টার আবহাওয়ার অবস্থা সম্পর্কে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বৃদ্ধি পেতে পারে।আবহাওয়ার সার্বিক অবস্থা সম্পর্কে বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, উড়িষ্যা-পশ্চিমবঙ্গ উপকূলের অদূরে উত্তর পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত লঘুচাপটি ঘণীভূত হয়ে সুস্পষ্ট লঘুচাপে পরিণত হয়ে একই জায়গায় অবস্থান করছে।এর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপের তারতম্য বিরাজ করছে। মৌসুমী বায়ুর অক্ষ পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তর প্রদেশ, গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গ লঘুচাপের কেন্দ্রস্থল ও বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চল হয়ে আসাম পর্যন্ত বিস্তৃত। মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশের দক্ষিণাংশে সক্রিয় এবং দেশের অন্যত্র মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে শক্তিশালীভাবে সক্রিয় রয়েছে।

এদিকে পানি উন্নয়ন বোর্ডের কেন্দ্রীয় নিয়ন্ত্রণ ও তথ্য কেন্দ্র বলছে, আগামী ৪৮ ঘণ্টায় ব্রহ্মপুত্র ও যমুনার পানি স্থিতিশীল থাকতে পারে। গঙ্গা, পদ্মা ও মেঘনার পানি বৃদ্ধি পেতে পারে।একই সঙ্গে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা তথ্যকেন্দ্রের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, শুক্রবার সকাল ৬টার তথ্য অনুযায়ী বাহাদুরাবাদে যমুনার পানি ১৮ সেমি. ও কুড়িগ্রামে ধরলার পানি ২ সেমি. বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, পানি উন্নয়ন বোর্ডের ৭৩টি পানি মনিটরিং স্টেশনের মধ্যে ৪৬টি স্থানে পানি বৃদ্ধি ও ২৪টি স্থানে পানি হ্রাস পেয়েছে। একটি স্থানে পানি স্থিতিশীল রয়েছে এবং ২টি স্থানের খবর পাওয়া যায়নি। ২টি স্থানের পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।শুক্রবার সকাল ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় মনু রেলওয়ে ব্রিজে ৬০ মিমি, সিলেটে ৩১ মিমি, খুলনায় ৩৫ মিমি ও কানাইঘাটে ২৯ মিমি বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।