জাতীয় ঢাকা শিক্ষাঙ্গন

বিসিএস পরীক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে পুলিশের মামলা

BCS20130712003258স্টাফ করেসপন্ডেন্ট,হটনিউজটোয়েন্টিফোরবিডি.কম,ঢাকা: বিসিএসসহ সব সরকারি চাকরিতে কোটা প্রথা বাতিল এবং ৩৪তম বিসিএসের ফলাফল বাতিল করে পুনর্মূল্যায়নের দাবিতে নামা আন্দোলকারী শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে বৃহস্পতিবারের যানবাহন ভাংচুর ও আগুন দেওয়ার ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করেছে।শুক্রবার সকালে শাহবাগ থানায় এ মামলা করে পুলিশ। বৃহস্পতিবার যাদের আটক করা হয়েছে তাদের বিরুদ্ধেও মামলা করেছে পুলিশ।মামলার নয় আসামির মধ্যে রয়েছেন, হাফিজুর রহমান, পিতা আলাউদ্দীন, গ্রাম শেহলিয়া, ধুনট, বগুড়া। বর্তমান ঠিকানা রুম নম্বর ৪২, এসএম হল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। তিনি মাস্টার্স ২য় সেমিস্টারের ছাত্র।মির্জা তৌহিদুল ইসলাম, পিতা আব্দুল মান্নান। গ্রাম- বেলানগর, বাঞ্ছারামপুর, ব্রাহ্মণবাড়িয়া। বর্তমান ঠিকানা, মীর হাজীর বাগ, যাত্রাবাড়ি, ঢাকা।শিকদার দিদারুল ইসলাম। পিতা- আবুল খায়ের শিকদার। গ্রাম রাজপাট, থানা মোল্লারহাট, বাগেরহাট। বর্তমান ঠিকানা রুম ৩১৪, বঙ্গবন্ধু হল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। তিনি মাস্টার্স পরীক্ষা শেষ করেছেন।মতিউর রহমান, পিতা মোমরেজ শেখ, গ্রাম বেজিডাঙ্গা, আলফাডাঙ্গা, ফরিদপুর। বর্তমান ঠিকানা- ৪১৫ বঙ্গবন্ধু হল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। তিনি মাস্টার্স প্রথম সেমিস্টারের ছাত্র।মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম, পিতা মৃত মোহাম্মদ আলী। গ্রাম সবদলপুর, বীরগঞ্জ, দিনাজপুর। বর্তমান ঠিকানা- ৫০৩ বঙ্গবন্ধু হল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। তিনি মাস্টার্স ২য় সেমিস্টারের ছাত্র।জুনায়েদ, পিতা আজিজুর রহমান। গ্রাম – পূর্ব জালিয়া পাড়া, বাঁশখালী, চট্টগ্রাম। বর্তমান ঠিকানা- এসএম হলের বারান্দা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। তিনি মাস্টার্স ১ম সেমিস্টারের ছাত্র।নুরুল হুদা, পিতা মোক্তার আহমদ। গ্রাম নাপতখালি, থানা ও জেলা কক্সবাজার। বর্তমান ঠিকানা- ৪০৮ জিয়া হল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। তিনি মাস্টার্সে ভর্তির জন্য অপেক্ষা করছেন।রায়হান কাউসার। পিতা আব্দুর রশীদ। গ্রাম- হাড়িয়া পাড়া, থানা দূর্গাপুর, জেলা- রাজশাহী। বর্তমান ঠিকানা-২৬৮, মহসিন হল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। তিনি মাস্টার্স ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী।মোহাম্মদ আরীফ হোসেন। পিতা নুর মোহাম্মদ মল্লিক। গ্রাম- ছালেনামা। শিবচর, মাদারীপুর। বর্তমান ঠিকানা ১৫২ জহিরুল হক হল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে আন্দোলনরত পাঁচ থেকে সাতশ’ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা কামরুল হাসান শাহবাগ থানায় মামলাটি দায়ের করেন।মামলায় অভিযোগ করা হয়, আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বিধিবহির্ভূতভাবে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে প্রবেশ করেন।এ সময় তারা ক্যাম্পাসের বিভিন্ন জায়গায় ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করেন। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক সম্পদ নষ্ট বা ধ্বংস হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমতি না নিয়ে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করায় ও এ ধরনের ধ্বংসাত্মক কাজে যেমন নিরাপত্তা বিঘ্নিত হয়েছে তেমনি ধ্বংস হয়েছে সম্পদ। মামলার এজাহারে নাম উল্লেখ না করে পাঁচ থেকে সাতশ’ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, বিসিএস পরীক্ষার্থী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে বৃহস্পতিবার রাজধানীর শাহবাগ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়। এ সময় সাংবাদিকসহ আহত হন বেশ কয়েকজন। পুলিশের সঙ্গে ছাত্র-ছাত্রীদের ধাক্কাধাক্কি ও হাতাহাতি থেকে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে লাঠিচার্জ ও টিয়ারসেল ছোঁড়ে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ বেশ কিছু শিক্ষার্থীকে আটক করে শাহবাগ থানায় নিয়ে যায়। পরে আটকদের বিরুদ্ধেও মামলা করে পুলিশ।চাকরিতে মুক্তিযোদ্ধা কোটা ও সদ্য প্রকাশিত ৩৪তম বিসিএস’র ফল বাতিলের দাবিতে বুধবার সকাল থেকে আন্দোলনে নামেন বঞ্চিত বিসিএস পরীক্ষার্থীরা। বুধবারের শাহবাগ মোড়ে অবরোধের ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবারও আন্দোলন শুরু করতে গেলে পরীক্ষার্থীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।