কৃষি দিনাজপুর রংপুর লাইফ স্টাইল

পার্বতীপুরে ইরি-বোরো ধান কাটতে কৃষি শ্রমিক সংকট

945e4c41-5221-4513-b401-1e35d3bef08eরাইসুল ইসলাম, পার্বতীপুর,দিনাজপুর: দিনাজপুরের পার্বতীপুরে ইরি-বোরো মৌসুমে শুরুতেই ধান কাটার জন্য কৃষি শ্রমিক সংকট দেখা দিয়েছে। অগ্রিম টাকা দিয়েও কৃষি শ্রমিক মিলছে না। এক যোগে ধান পাকার কারনে এ সংকট দেখা দিয়েছে বলে কৃষকরা জানিয়েছেন। অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার পার্বতীপুরে ইরি-বোরো ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। মাঠে এক যোগে ধান পেকেছে। এখন কেটে ঘরে তোলার অপেক্ষা কৃষকদের। পার্বতীপুর উপজেলার ১০ ইউনিয়নের গ্রামঞ্চলে কৃষকরা এখন হন্য হয়ে কৃষি শ্রমিক খুজছেন। রেল স্টেশন, বাসটার্মিনাল, ভবানীপুর বাজার, রেলওয়ে পার্ক, থানা মোড় ও ঢাকা মোড়ে এ সব স্থানে কৃষি শ্রমিক সকালে কাজের উদ্দেশে সমবেত হতো, সেখানেও এখন তাদের পাওয়া যাচ্ছে না। জমির মালিকরা কৃষি শ্রমিকের জন্য ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করছেন। কৃষি শ্রমিকের দল দেখলেই কৃষকরা হতবাক। কৃষি শ্রমিক পাওয়া গেলে সঙ্গে সঙ্গে তাদের মাইক্রোবাসে করে জামাই আদর করে নিয়ে যাচ্ছে। এমন কি জমির মালিকরা কৃষি শ্রমিকদের মটর সাইকেলে করে নিয়ে যেতে লক্ষ্য করা গেছে। অনেক কৃষক কৃষি শ্রমিকদের তিন বেলা খাবার ও রাতে রঙ্গিন টেলিভিশন দেখানোর লোভ দেখাচ্ছে। একই সঙ্গে প্রচলিত মজুরির চাইতে বেশি দেয়ার ও প্রতিশ্র“তি দেয়া হচ্ছে।
জানা যায়, পার্বতীপুরে বিঘা প্রতি ৩ হাজার ৫শ’ টাকা থেকে ৪ হাজার টাকায় কৃষি শ্রমিক জমিতে কাজ করছেন।
মন্মথপুর ইউনিয়নের কৈবতপাড়ার দেবেন্দ্র বিশ্বাস ও কোনাপাড়া গ্রামের কৃষক মমতাজ আলী জানান, ইরি-বোরো আবাদ ভালো ফলন হয়েছে তা ঝড় ও শিলা বৃষ্টির ভয় কৃষকের মাঝে আতংক বিরাজ করছে।
পার্বতীপুর কৃষি অধিদপ্তরের উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা ইলিয়াস ফারুক জানান, এবার উপজেলায় ২৪ হজার ৭৫০ হেক্টর জমিতে ইরি-বোরো ধানের চাষ করা হয়েছে। হাইব্রিড, মিনিকেট, উপশীসহ স্থানীয় অনেক জাতের ধান। আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় ফলনও ভালো হচ্ছে বলে তিনি জানান।