ঝিনাইদাহ যশোর শিক্ষাঙ্গন

‘স্বপ্নজয়ী মা’ সম্মাননা পেলেন মোক্কারা খাতুন

adece078-79b3-4d6d-83e4-efbb47504646 এস,আই মল্লিক, ঝিনাইদহ থেকে: ‘স্বপ্নজয়ী মা’ হিসাবে সম্মাননা পুরস্কার পেয়েছেন ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলার স্কুল শিক্ষিকা মোসাঃ মোক্কারা খাতুন। এ বছরই প্রথম বাংলাদেশ সরকারের মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় বিশ্ব মা দিবস উপলক্ষ্যে ‘স্বপ্নজয়ী মা’ শিরোনামে এই সম্মাননা পুরস্কার প্রদান করেছেন। মা হিসাবে সন্তানদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তোলার অবদান হিসাবে মা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় এই সম্মাননা প্রদান করেন। সারাদেশ থেকে ১৫ জন নারীকে এই সম্মাননা প্রদান করা হয়। গত রোববার দুপুরে বিশ্ব মা দিবসে ঢাকার স্কাটন রোডের মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের নিজস্ব ভবণের ৪র্থ তলার হলরুমে এই সম্মাননা পুরস্কার প্রদান করেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি।
মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের আয়োজনে ‘স্বপ্নজয়ী মা’ সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের সচিব নাছিমা বেগম। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) সাহিন আহমেদ চৌধুরী।
‘স্বপ্নজয়ী মা’ মোসাঃ মোক্কারা খাতুন কোটচাঁদপুর পৌর এলাকার ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বাজেবামনদহ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা এবং অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক রবিউল ইসলামের সহধর্মীনি। তিনি এক পুত্র ও এক কন্যা সন্তানের জননী। ছেলে শফি কামাল ঢাকা তিতুমীর কলেজ থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে মাস্টার্স পাশ করে বর্তমানে ঢাকায় হোলসিম কোম্পানীর সিমেন্ট সেক্টরে এক্সিকিউটিভ অফিসার হিসাবে কর্মরত আছেন এবং কন্যা নুসরাত জাহান আরেফিন জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে লোকপ্রশাসন বিভাগে অনার্স ও মাষ্টার্সে ১ম বিভাগে ১ম হয়ে বর্তমানে উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে লোকপ্রশাসন বিভাগে প্রভাষক হিসাবে কর্মরত রয়েছেন।
স্বপ্নজয়ী মা মোক্কারা খাতুন বলেন, অনেক প্রতিকুলতা থাকা সত্ত্বেও আমি আমার সন্তানদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে গড়ে তুলে তাদের অভিষ্ঠ লক্ষ্যে পৌছে দিতে পেরে মা হিসেবে আমি গর্বিত। বাংলাদেশ সরকার আমাকে এই সম্মাননা প্রদান করায় নিজেকে ধন্য মনে করছি। সেই সাথে সরকারের প্রতি আমি চিরকৃতজ্ঞ।
উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মুন্সি ফিরোজা সুলতানা বলেন, আমরা খুবই আনন্দিত যে, ‘জয়িতা অন্বেষয়ে বাংলাদেশ’ শীর্ষক প্রোগ্রামের পাশাপাশি সরকার সমাজের বিভিন্ন স্তরের নানামুখী সংগ্রামী মায়েদের নিয়ে ‘স্বপ্নজয়ী মা’ সম্মাননা প্রদানের আয়োজন করেছে। এটি এমন একটি সম্মাননা যেখানে একজন মা তার জীবনে যে স্বপ্নের দুয়ারে তিনি পৌছাতে পারেনি অথচ তার সন্তানকে সেই জায়গায় পৌছে দিয়েছেন। এটিই মা হিসাবে তার চরম স্বার্থকতা। এই চমৎকার ও মহৎ উদ্যোগ গ্রহণ করায় বাংলাদেশ সরকারের মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের ডি,জি মহোদয় এবং শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সম্মানিত সচিবকে আমি আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। এছাড়া সরকারের এ ধরনের উদ্যোগ নারী শিক্ষা এবং মায়েদের মর্যাদা বৃদ্ধি করাসহ দেশ ও জাতির উজ্জ্বল ভবিষ্যত গড়ে তুলতে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখবে বলে আমি মনে করি।