কুড়িগ্রাম রংপুর

তিস্তা নদীর তীর সংরক্ষণ ও বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধের কাজ চলছে

341a5933-bdcc-4360-b5da-dbc1602f21ddডাঃ জিএম ক্যাপ্টেন কুড়িগ্রাম জেলা প্রতিনিধিঃ কুড়িগ্রাম রাজারহাটের তিস্তা নদীর বামতীর বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধের তীর সংরক্ষণ সহ বিকল্প বাঁধ নির্মাণ কাজ চলছে। দূর্নীতি সঙ্গে আপোষ না করে দ্রুত গতিতে। কাজের মান অত্যান্ত ভাল, যা ঠিকাদারী কাজে নজির বিহীন। সরেজমিনে গিয়ে অনুসন্ধানে বিভিন্ন সূত্রে জানা যায় কুড়িগ্রাম-০৮/২০১৪-১৫ ইং প্যাকেজের আওতায় গত বছর কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট উপজেলার ডাংরার হাট গ্রামে ৪ কোটি ২৯ লক্ষ ২৩ হাজার টাকা ব্যায়ে তীর সংরক্ষণ বাঁধ নির্মাণ কাজের টেন্ডার পেয়ে ঠিকাদার তাজুল ইসলাম কাউকে সাব-লিজ প্রদান না করে নিজে কাজটি বাস্তবায়িত করিতেছে।

ষ্টিমেট অনুযায়ী কুড়িগ্রাম পাউবো কর্তৃপক্ষ সার্বক্ষণিক তদারকি করছেন, সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে। বিশ্বস্ত সূত্রে আরো জানা যায় কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মাহ্ফুজুর রহমান সৎ ব্যক্তি তিনি নিজেও দূর্নীতি করেন না। এবং কাউকে দূর্নীতি করতে দেন না। এবং প্রতি নিয়ত কাজের মান অক্ষুন্ন রাখার জন্য ঠিকাদার ও কাজের সংশ্লিষ্ট শ্রমিকদের সর্বদা নজরে রাখেন। এবং কাজের মান যাচাই করেন। ফলে কাজটি অত্যন্ত ভাল মানের হয়। সরেজমিনে দেখা যায় সিডিউল মোতাবেক ওয়ান এফ এম বালুদ্বারা স্যান্ড সিমেন্ট গানি ব্যাগ দ্বারা স্থাপনের কাজ চলিতেছে। এবং স্যান্ড সিমেন্ট ব্লক এর কাজ চলিতেছে। যাহা অত্যন্ত ভাল মানের ।

কাজের স্থায়িত্ব সম্পন্ন  করতে পারলে কাজের স্থায়িত্ব হবে। গত জুন মাসে কাজটির পাইলিং এবং ৪০ হাজার ৫৪৬টি ব্যাগ ডারপিং করে উক্ত এলাকা রক্ষা করা হইয়াছে। এবং অফিস কর্তৃপক্ষ ১৫ লক্ষ টাকা ঠিকাদার কর্তৃক প্রদান করা হয়েছে। এ তথ্য বিকৃতি করে রাজারহাট উপজেলার স্থানীয় পত্রিকায় মিথ্যা ভ্রান্ত তথ্য প্রদান করা হয়েছে। যাহা অসত্য ও বানোয়াট ভিত্তিহীন।