জাতীয়

চৈত্রের খরতাপে হাঁপিয়ে উঠেছে দেশবাসী

৪৪নিজস্ব প্রতিবেদক, হটনিউজ২৪বিডি.কম ১১ এপ্রিল : চৈত্রের খরতাপে হাঁপিয়ে উঠেছে মানুষ। কাঠফাটা প্রচণ্ড রোদ আর গরমে হাঁসফাঁস অবস্থা। চৈত্রের খরতাপে তেতে উঠতে শুরু করেছে রাজধানী। সেই সাথে সারাদেশে। খরতাপ ছড়িয়ে প্রকৃতি থেকে যাই যাই করছে বাংলা পঞ্জিকার শেষ মাস চৈত্র। তাপমাত্রার পারদ কেবল উপরেই উঠছে। আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে, রোববার বেলা বাড়ার সাথে সাথে উঠতে থাকবে তাপের পারদ। দুপুর নাগাদ যা পৌঁছে যাবে ৪১ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। চৈতালী বৃষ্টি আর থাকছে না। নববর্ষেও থাকবে চড়া রোদ, আর গা-জ্বলা গরম। গ্রীস্মের খরতাপ নিয়েই শেষ হবে চৈত্র, শুরু হবে বৈশাখ।

আবহাওয়ার পূর্বাভাস বলছে, রোববার তাপমাত্রা থাকবে ৪০-৪১ ডিগ্রি আর ১১ ও ১২ এপ্রিল তা উঠে যাবে ৪১.৬ ডিগ্রিতে। ২০ এপ্রিল পর্যন্ত আরও অন্তত দুইদিন এই ৪১ ডিগ্রির খরতাপে পুড়বে ঢাকাসহ সারাদেশের বিভিন্ন অঞ্চল। আবহাওয়াবিদরা বলছেন, রাজধানীতে ৩৭-৩৮ ডিগ্রি তাপমাত্রাই অসহনীয় হয়ে ওঠেছে। সেক্ষেত্রে ৪১ ডিগ্রি তাপমাত্রা নগরবাসীকে ভোগাবে। সূর্যদয় থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত যেন আগুন ঝরবে।

২০১৪ সালের ২৪ এপ্রিল রাজধানীতে রেকর্ড পরিমাণ ৪২.২ ডিগ্রি তাপমাত্রা অনুভূত হয়েছিল, যা ছিল এর আগে ৫৪ বছরের রেকর্ড। এর আগে ১৯৬০ সালে ৪২.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ঢাকায়। আবহাওয়াবিদরা বলছেন, পহেলা বৈশাখের পরে ১৫ এপ্রিল আকাশে মেঘ আসার, এমনকি বৈশাখী ঝড় আসার সম্ভাবনা আছে।

হটনিউজ২৪বিডি.কম/এআর