রাজনীতি

২০২৪ সালেও আ.লীগ ক্ষমতায় আসবে

48.নিজস্ব প্রতিবেদক, হটনিউজ২৪বিডি.কম ৩১ মার্চ : ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার শুধু আগামী ২০১৯ সালের জাতীয় নির্বাচন নয়, ২০২৪ সালের নির্বাচনেও ক্ষমতায় আসবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

সোমবার বিকেলে রাজধানীর ইনস্টিটিউট অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ মিলনায়তনে বাংলাদেশ ইনস্যুরেন্স ফোরাম (বিআইএফ) আয়োজিত মহান স্বাধীনতা দিবসের আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে তিনি এ সব কথা বলেন।

তিনি বলেন, মালয়েশিয়ায় টানা ২২ বছর ড. মাহাথির ভোটের মাধ্যমে ক্ষমতায় ছিলেন। জনগণ কেন তাকে ক্ষমতায় রেখেছিলেন? কারণ তিনি জনগণের জন্য কাজ করেছিলেন। সিঙ্গাপুরের লি-কুয়ান। তার ছেলে এখনো বংশ পরম্পরায়  সেখানে ক্ষমতায় আছেন। কারণ লি-কুয়ান সম্পদহীন দেশ সিঙ্গাপুরকে কোথায় নিয়ে গিয়েছিলেন। এটা সবাই জানি। কাজেই আমরা মনে করি, ৫ বছর বা  ১০ বছর ক্ষমতায় থেকে সব কিছু সফল করা সম্ভব হয় না। একটা সময় লাগে। আমরা দেশটাকে ধারাবাহিকভাবে এগিয়ে নিয়ে যেতে চাই। কিন্তু আমাদের দুভার্গ্য হল, দেশের মানুষ দ্রুত পরিবর্তন চায়।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আছেন বলেই দেশের সব খাতে পরিবর্তন হচ্ছে। কারণ আমরা যখন ২০০৯ সালে ক্ষমতায় এসেছিলাম তখন ছিল অন্ধকারের বাংলাদেশ। আর এখন শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশ হয়ে গেছে ‘আলোকিত বাংলাদেশ’। তিনি সময় না পেলে এটা কি করে করতেন? সময় পেয়েছেন বলেই এটা করেছেন।

বিএনপির রাজনীতির সমালোচনা করে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য  স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ইনশাল্লাহ আপনারা লিখে রাখেন। আমি ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্সে বলে যাচ্ছি ২০১৯ সালেও খালেদা জিয়া শেখ হাসিনার অধীনেই নির্বাচন করবে এবং করতে বাধ্য হবে। কারণ বিএনপি জীবনেও আর আন্দোলন করতে পারবে না। আন্দোলন করার ক্ষমতা তাদের নেই।  যে আন্দোলনে জনগণ থাকে না সেই আন্দোলন সফল হয় না। আর খালেদা জিয়া শেখ হাসিনার সঙ্গে রাজনীতি করে পারবেন না।

তিনি আরো বলেন, ভুল হলে নির্বাচন আছে। কারণ নির্বাচনের মধ্য দিয়েই সরকার পরিবর্তন হয়। এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু আমরা কোনোভাবেই অসাংবিধানিক পথে ক্ষমতা পরিবর্তন হতে দেব না। এটা প্রশ্নই ওঠে না।

১৯ মার্চ অনুষ্ঠিত বিএনপির জাতীয় সম্মেলনে নেতা নির্বাচন প্রক্রিয়া নিয়ে খালেদা জিয়ার সমালোচনা করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন,  আজকে এত বছর পর একটি কাউন্সিল করে বললেন, আমরা আগামীতে শেখ হাসিনা বিহীন নির্বাচন করব। সংবিধানে কি লেখা আছে, তা পড়ে দেখেন। ভারতে যেভাবে নির্বাচন হয়। ব্রিটেনে যেভাবে নির্বাচন হয়, ইউরোপে যেভাবে নির্বাচন হয়, বাংলাদেশেও ইনশাল্লাহ নির্বাচিত সরকারের অধীনেই নির্বাচন হবে। সেই নির্বাচন ২০১৯ সালেই হবে।

কারও ক্ষমতা নেই সংবিধান ভায়োলেট করে নির্বাচন করে। শেখ হাসিনারও ক্ষমতা নাই। এটাই বাস্তব। কারণ বেগম জিয়া একথা তার কর্মীদের গরম করার জন্য, আশ্বস্ত করার জন্য বলেছেন বলেও দাবি করেন এই আওয়ামী লীগ নেতা।

আয়োজক সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এবং পপুলার  লাইফ ইনস্যুরেন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও বিএম ইউসুফ আলীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এম শেফাক আহমেদ একচ্যুয়ারি, পদ্মা লাইফ ইনস্যুরেন্সের চেয়ারম্যান এবিএম জাফরুল্লাহ প্রমুখ।
হটনিউজ২৪বিডি.কম/এআর