রাজশাহী শিক্ষাঙ্গন সিরাজগঞ্জ

জাহান আরা উচ্চ বিদ্যালয়ে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন

index সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: ব্যাপক উৎসাহ উদ্দিপনা ও আনন্দঘন পরিবেশের মধ্যে জাহান আরা উচ্চ বিদ্যালয়ে স্টুডেন্ট কেবিনট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুধু জাহান আরা উচ্চ বিদ্যালয় নয় সিরাজগঞ্জের বিভিন্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় গুলোতে স্টুডেন্ট কেবিনেট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের ততা¡বধানে  এই নির্বাচন আয়োজন করেছে বাংলাদেশ শিক্ষা তথ্য ও পরিসংখ্যান ব্যুরো। দেশব্যাপি ২ ধাপে মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোতে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। প্রধম ধাপে সিরাজগঞ্জের  রায়গঞ্জ উপজেলা ব্যতিত সকল উপজেলার মাধ্যমিক বিদ্যালয়গুলোতে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সকাল ৯ থেকে শুরু হয়ে দুপুর ২টায় নির্বাচন শেষ হয়। ছাত্র-ছাত্রীরা সৌহার্দপুর্ন  সম্পর্কের মধ্যে দিয়ে সারিবদ্ধ ভাবে দাড়িয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। নির্বাচন উপলক্ষে বিদ্যালয়গুলোতে আনন্দের আমেজ বিরাজ করে। এই নির্বাচনের মধ্যে দিয়ে ছাত্র -ছাত্রীরা বিদ্যালয়ের সার্বিক উন্নায়নের লক্ষে তাদের নেতা নির্বাচিত করবে। সকালে জাহান আরা উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায় বিদ্যালয়ের নিচ তালায় সারিবদ্ধ ভাবে দাড়িয়ে ভোট প্রদান করছে চাত্ররা আর দোতালায় একই ভাবে ভোট প্রদান করছে ছাত্রীর। জাতীয় নির্বাচনের মতই বুত বানানো হয়েছিলো এবং গোপন স্থানে গিয়ে ছাত্র-ছাত্রীরা ভোট দিয়ে ব্যালট বাক্সে ছারে। বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীরাই নির্বাচন কমিশনার ,পোলিং অফিসার এবং প্রিজাইডিং অফিসারের দায়িত্ব পালন করে। বিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষিরা নির্বাচন পর্যবেক্ষন করেন। বিদ্যালয়ে মোট ৫০৯ জন ভোটারের মধ্যে ৪০৪ জন ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ছিলো ১৯৫ জন এবং মহিলা ভোটার ছিলো ২০৯ জন। সর্বাধিক ভোট পেয়েছে দশম শ্রেণীর ছাত্র কেরামত আলী । তার প্রাপ্ত ভোট ৩২৬টি। এছারা অন্যান্য পদে আরো যারা উত্তীর্ণ হয়েছে তারা হলো নিশি পারভিন,শিফা খাতুন,বৈশাখী সুত্রধর,রবিন শিকদার,আল রাফি,সুরাইয়া খাতুন। ৬ষ্ট শ্রেণী থেকে ১০ম শ্রেনী পর্যন্ত ছাত্র-ছাত্রীরা ভোট প্রয়োগ করেন । সরকারি নিয়ম অনুযাযী ৬ষ্ট থেকে দশম শ্রেনী পর্যন্ত যে কোন ছাত্র বা ছাত্রী নির্বাচনের প্রার্থী হতে পারবেন। একজন ছাত্র ৮ টি করে ভোট দিতে পারবেন। এই নির্বাচনে ব্যালট পেপার,বুথ,ব্যালট বাক্স সব থাকলেও ছিলো না কোন প্রতিক । এখানে ৮ সদস্যর কেবিনেট গঠিত হবে। সর্বাধিক ভোটে যে নির্বাচিত হবে সে হবে প্রধান মন্ত্রী। মন্ত্রী সভার আদলে এখানে অন্যান্যদের মন্ত্রনালয়ের দায়িত্ব দেয়া হবে। দায়িত্ব ক্ষেত্রগুলো হলো পরিবেশ সংরক্ষন(বিদ্যালয় আঙ্গিনা ও টয়লেট পরিস্কার এবং বর্জ্য ব্যবস্থাপনা),পুস্তক ও শিখন সামগ্রী,স্বাস্থ্য,সংস্কৃতি ও সহপাট কর্মসুচি,পানি সম্পদ,বৃক্ষ রোপন ও বাগান তৈরি এবং  দিবস ও অনুষ্ঠান উদযাপন। বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক সঞ্জয় গৌর জানান ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে কয়েক দিন ধরেই ছিলো নির্বাচনি আমেজ কে কাকে ভোট দিবে এ নিয়েই কয়েক দিন ধরে চলছিলো জল্পনা কল্পনা,প্রার্থীরা স্কুলে ক্লাশের মাঝে মাঝেই করেছে প্রচরনা। তাই আজকে ভোটের দিনে ছাত্র-ছাত্রী উপস্থিতি বেশী। আর প্রার্থীদেরও দেখা গেছে ছাত্র-ছাত্রীদের সাথে বন্ধুত্বপুর্ন আচরন করতে। জাহান আরা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সরকার ছানোয়ার হোসেন বলেন ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে নির্বাচন নিয়ে যে উৎসাহ উদ্দীপনা দেখা গেছে তাতে ভালোই লেগেছে বিশেষ করে যারা প্রার্র্থী হয়েছে তার কিন্তু ক্লাশ ফাকি দিয়ে কোন প্রচরানার কাজ কের নাই। ক্লাশের ফাকে ফাকে তারা ভোট চেয়েছে ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে। তিনি আরো বলেন ছাত্র-ছাত্রীদের ব্যক্তিত্ব ও নেতৃত্বের বিকাশ এবং গনতন্ত্রের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে এই কেবিনেট নির্বাচন গুরুত্বপুর্ন ভুমিকা রাখবে।