বিনোদন

জামিন পেলেও ছাড়া পাচ্ছেন না মডেল ইমা

image_677আদালত প্রতিবেদক: অর্থ আত্মসাত ও প্রতারণার মামলায় জামিন পেয়েও জামিননামা দাখিল না করায় কারাগার থেকে বের হতে পারছেননা কথিত মডেল ইমা। গত ২৪ জুন ওয়ারী থানায় দায়ের করা এই মামলায় জামিন পেয়েছিলেন ইমা। এরপর দিন মডেল ইমার জামিন বাতিল করে দেন বিচারক। গত ১১ জুন ওয়ারী থানায় দায়ের করা প্রতারণার মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয় ইমাকে। ওই দিন ইমাকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাদের অনুমতি দেন বিচারক। পরে গত ১৬ জুন ইমাকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদ সংক্রান্ত প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, জেলগেটে মডেল ইমাকে ভালভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা সম্ভব হয়নি। যে কারণে তাকে রিমান্ডে নেয়া প্রয়োজন। এর আগে গুলশান থানায় দায়ের করা পৃথক দুই মামলায় ইমাকে দুই দিন রিমান্ডে নেয়ার অনুমতি পেয়েছিল পুলিশ। গত ১৭ জুন ওয়ারী থানার মামলায় ইমাকে তিন দিন রিমান্ডে নেয়ার অনুমতি দেয় আদালত। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে গত ২৪ জুন ইমাকে আদালতে হাজির করা হয়। রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ সংক্রান্ত পুলিশ প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, মডেল ইমা একজন প্রতারক। সে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে। তাকে জামিন দিলে সে পালিয়ে যাবে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সবিন চন্দ্র মাহাতো এ প্রতিবেদককে বলেন, প্রতারণার অভিযোগে ওয়ারী থানায় দায়ের করা মামলায় ইমাসহ অন্য আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেওয়া হবে। ভিওআইপি লাইসেন্স পাইয়ে দেয়ার নাম করে মডেল ইমা মনিরুল ইসলাম ভূঁইয়ার কাছ থেকে এগার লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেন। ২০১১ সালের ১১ মার্চ ওয়ারী থানার র‌্যাংকীন স্ট্রীট সংলগ্ন সিলভার ডেন স্কুলের সামনে এ টাকার লেনদেন হয়। টাকা না দিয়ে টালবাহানা করতে থাকায় গত ১১ জুন মডেল ইমা, তার ভাই তানভীর ও তার বাবা আলমগীরের বিরুদ্ধে ওয়ারী থানায় মামলা করে প্রতারিত যুবক মনিরুল। আসামি তানভীর ও ইমার বাবা আলমগীর খালিদ পলাতক রয়েছেন।