চট্টগ্রাম রাজনীতি

কামাল হোসেন মাসুদ, নোয়াখালী:কলেজে যাতায়াতের লিং রোডসমূহ সংস্কার, লাইব্রেরী সেমিনারে নতুন সংস্করণের বই 2উত্তোলন ও দৈনিক পত্রিকা সরবরাহ, আবাসন সংকট নিরসনে হল-হোস্টেল নির্মাণ, ভর্তি সংকট নিরসনে আসন সংখ্যা বৃদ্ধ, ইন্টারমিডিয়েট ক্যাম্পাসে নতুন ভবন নির্মাণ ও ল্যাবরেটরি স্থাপন, স্বতন্ত্র পরীক্ষা হলের নাম ‘শহীদ মুনির চৌধুরী’ নামকরণ, পর্যাপ্ত শিক্ষক নিয়োগ, ক্লাসরুম নির্মান ও একাডেমিক ক্যালেন্ডর চালুসহ ৮ দফা দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন ও সমাবেশ করে নোয়াখালী সরকারি কলেজ ছাত্র ফ্রন্ট শাখা। রোববার বেলা ১১টার সময় কলেজ ক্যাম্পাসে মিছিল, মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন বিভাগ প্রদক্ষিণ শেষে বিজ্ঞান অনুষদের সামনে মানববন্ধন ও সমাবেশে করে।

সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট নোয়াখালী সরকারি কলেজ শাখার সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল হক পলাশের সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, নোয়াখালী জেলা ছাত্র ফ্রন্টের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোবারক করিম, কলেজ শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক জসিম উদ্দিন খোকন, দপ্তর সম্পাদক কাজী জহির উদ্দিন, ফখরুল ইসলাম ফরহাদ প্রমুখ।

এ সময় বক্তারা বলেন, বৃহত্তর নোয়াখালী অঞ্চলের সবচেয়ে বড় বিদ্যাপীঠ নোয়াখালী সরকারি কলেজ, প্রতিষ্ঠার ৫০ বছরে পদার্পণ করলেও প্রায় ১৩ হাজার শিক্ষার্থীর এ ক্যাম্পাসে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ গড়ে তোলা হয়নি। পবিত্র জ্ঞানালয়ে আসার পথে ছাত্রদের হাঁটুজল, কাদা পেরিয়ে আসতে হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈশিষ্ট্য অনুযায়ী নতুন জ্ঞানের সৃষ্টির কোন আয়োজন না থাকায় এ ক্যাম্পাসে জ্ঞান চর্চাও স্থবির হয়ে পড়েছে। বছরে ৩ মাসের বেশি ক্লাস না হওয়া, ছাত্ররা প্রতিবছর লক্ষ লক্ষ টাকা সেমিনার ফি দিলেও সেমিনারগুলোতে সৃজনশীল গ্রেডিং পদ্ধতির নতুন পর্যাপ্ত বই উত্তোলন করা হয়নি। পর্যাপ্ত হল হোস্টেল না থাকায় শিক্ষার্থীরা বেশী ভাড়া দিয়ে অস্বাস্থ্যকর মেসে থেকে অমানবিক জীবন যাপন করছে। সেশনজটে শিক্ষার্থীদের জীবন থেকে অমূল্য সময় হারিয়ে যাচ্ছে।

এ বক্তারা, কলেজে আসার পথের সবগুলো রাস্তা সংস্কার, পর্যাপ্ত শিক্ষক নিয়োগ, ক্লাসরুম ও হল-হোস্টেল নির্মাণ, একাডেমিক ক্যালেন্ডার চালু, ৩ মাসে ফল প্রকাশ করে সেশনজট নিরসন, সারা বছর ক্লাস চালুসহ ৮ দফা দাবি তুলে ধরেন।