প্রধান খবর

পদ্মার বুকে বঙ্গবন্ধুর ‘কর্ণফুলী’

১১.নিজস্ব প্রতিবেদক, হটনিউজ২৪বিডি.কম ১৮ ফেব্রুয়ারি : পদ্মার বুকে এগিয়ে চলেছে ছোট্ট ফেরি কর্ণফুলী। প্রাইভেট কার, মাইক্রোবাসের মতো হালকা বাহন আর বেশিরভাগ ভিআইপি যাত্রী পরিবহন করে এ ফেরি। ‘কে’ টাইপ ফেরিটি চলছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সময় থেকে। তাকে দেয়া ডেনমার্ক সরকারের উপহার এটি।

সংশ্লিষ্টদের কাছ থেকে জানা গেল এসব তথ্য। একই সময়ের অন্য কয়েকটি ফেরি এখন পুরনো, চলে না। কর্ণফুলি যত্নে টিকে আছে ভালোভাবে।

ফেরিটির মাস্টার আলী আক্কাস আগামি নভেম্বরে অবসরে যাচ্ছেন বলে জানান। ৪০ বছর ধরে এটি চালাচ্ছেন তিনি। ১৯৭৬ সালে বিআইডব্লিউটিসি’তে যোগ দিয়েছিলেন আক্কাস।

ব্যক্তিগত জীবনে তিন সন্তানের এ জনক সন্তানতূল্য ভাবেন কর্ণফুলীকেও।

৭০-৮০ দশকে কর্ণফুলী, সুরমা, যমুনা নামে এসব ফেরি চলতো আরিচা-নগরবাড়ি, আরিচা-গোয়ালন্দ রুটে।

পদ্মাসেতু চালু হলে আবারও ঠিকানা বদল হবে কর্ণফুলীর। অন্য যেখানে ফেরির প্রয়োজন, সেখানে হবে এর চলাচল।

পিরোজপুরের জেলা জজ হুমায়ূন কবিরকে দেখা গেল সপরিবারে ঢাকা চলেছেন। এছাড়া জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য শহীদুর রহমান ট্যাপাও চলেছেন পরিবার-স্বজনদের নিয়ে। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি বিভাগের অধ্যাপক মুকাদ্দেস সরকার ঢাকায় পরিবারের কাছে ফিরছেন।

এ ফেরিতে এটি তার প্রথম সফর। বললেন, আরাম ও কম সময়ে পৌঁছানোর আশা করছেন ফেরির গতি দেখে।

তবে ফেরির দোতলায় ওঠার সিঁড়িটি বেশ খাড়া বলে ভয় পাচ্ছেন যাত্রীরা। প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে বলেও জানা গেলো। ক্যান্টিনের খাবারের উচ্চমূল্যও হতাশ করছে যাত্রীদের।

হটনিউজ২৪বিডি.কম/এআর