জাতীয় রাজনীতি

খালেদা ঘর গোছাচ্ছেন

Khaleda00120130703215958ঢাকা: দলকে শক্তিশালী করার ধারাবাহিকতায় এবার অঙ্গ সংগঠনগুলোর সাংগঠনিক দুর্বলতা কাটাতে সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। বিএনপি প্রধান খালেদা ও দলের সিনিয়র ভাইস-চেয়ারম্যান তারেক রহমান (মা-ছেলে) পরামর্শ করেই এটি করছেন বলে সূত্র জানায়।
সূত্র মতে, নেতাকর্মীদের মধ্যে অসহযোগিতার মনোভাব দেখেই খালেদা জিয়া ‘আগে ঘর, তবে পর’ নীতিতে এগোনোকে ঠিক মনে করছেন।

অঙ্গ সংগঠনগুলোর গুরুত্বপূর্ণ পদে ব্যাপক পরিবর্তন আনাসহ আরও কিছু রদবদলের ফলপ্রসূ আলোচনা এরই মধ্যে তারেক রহমানের সঙ্গে খালেদার হয়েছে বলে জানিয়েছে সূত্র।

বিএনপির এক সিনিয়র নেতা জানান, চার সিটি করপোরেশন নির্বাচনে জয়ের পর তাদের আত্মবিশ্বাস অনেক বেড়েছে। দলের ছোট-বড় সব দুর্বলতা কাটানোর দিকে মনোযোগী হয়েছেন তারা। তাই দীর্ঘদিন ধরে চলতে থাকা দলের অঙ্গ সংগঠনগুলোর বিশৃঙ্খলা কাটানো এ মুহূর্তে জরুরি বলে মনে করছেন দলপ্রধান।

মহিলা দলে বাড়বে নিবেদিতদের গুরুত্ব

সূত্র জানায়, জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানার প্রভাব নিয়ে সংগঠনটিতে নানা আলোচনা-সমালোচনা ক্রমশ বাড়ছে। সংগঠনটি বর্তমানে ‘এক ব্যক্তিকেন্দ্রিক সংগঠন’ এ পরিণত হয়েছে বলে মন্তব্য করছেন অনেকেই।

মহিলা দলের এক নেত্রী নাম প্রকাশ না করার শর্তে হটনিউজকে বলেন, নিবেদিত অনেক নেতাকর্মীই এ কারণে দূরে সরে আছেন। বর্তমান এমপি বা এমপি হওয়ার যোগ্য অনেকেই দূরে সরে আছেন অভিমান ও বিরক্তি নিয়ে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সংগঠনের অপর নেত্রী হটনিউজকে বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের বিশেষ স্নেহ পান শিরিন। বিভিন্ন দলীয় কর্মসূচিতে তার অংশগ্রহণ ও খালেদা জিয়ার ঘনিষ্ঠ হওয়ার সুবাদে দলে শিরিনের আচরণও অস্বাভাবিক বলে অনেকে বলাবলি করেন। তার এমন ব্যবহারের কারণেও অনেক নারীনেত্রী দূরে সরে থাকেন।

সংগঠনের এক নারী এমপি হটনিউজকে বলেন, শিরিন কিছু ক্ষেত্রে উদ্ধত আচরণ করেন বলে শুনেছি। ম্যাডামের (খালেদা জিয়া) সঙ্গে তার ভালো সম্পর্ক থাকায় কেউ প্রতিবাদের সাহস পান না।

শিরিন নিজের অনেক সিদ্ধান্তই সংগঠনের সবার ওপর চাপিয়ে দেন বলেও এই এমপির অভিযোগ।

অপর সূত্র জানায়, শুধু শিরিন নন, নূরে আরা সাফাকে নিয়েও রয়েছে অনেকের অসন্তুষ্টি। রয়েছে নেতাকর্মীদের ক্ষোভও।

সংগঠনটির সভাপতি পদে সেলিমা রহমান, খুরশিদ জাহান হকের মতো নেত্রীরা ছিলেন কোনো এক সময়। সে পদে সাফাকে সংগঠনটির বেশিরভাগ নেতাকর্মীই ‘দুর্বল’ মনে করেন বলে সূত্রের দাবি।

বিএনপি সূত্র জানায়, মহিলা দলের এসব দুর্বলতা কাটাতে ও নেতাকর্মীদের মধ্যে গতিশীলতা বাড়াতে এবার নতুন পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। কাছে টানার ব্যবস্থা হচ্ছে দূরে সরে থাকা নেতাকর্মীদের। গুরুত্ব পাবেন সংগঠনের জন্য নিবেদিতপ্রাণ নেতাকর্মীরা।

মহানগরে ১০ জনের তালিকা

ঢাকা মহানগর বিএনপিতেও ব্যাপক পরিবর্তন আসছে বলে জানা গেছে। মহানগর কমিটির জন্য সংগঠনের নেতা আমান উল্লাহ আমান, নাসির উদ্দিন আহমেদ পিন্টু, হাবিব-উন-নবী সোহেলসহ দশজনের একটি তালিকা খালেদা জিয়ার কাছে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন দলের একজন দায়িত্বশীল নেতা।

যুবদলের রদবদলে ৮ জনের তালিকা

জাতীয়তাবাদী যুবদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের অবস্থান বরাবরই পরস্পরের বিরুদ্ধে। এ কারণে সংগঠনটির সাংগঠনিক কর্মকাণ্ডও মুখ থুবড়ে পড়েছে। তাই নামকাওয়াস্তে কর্মসূচি থাকলেও তাদের কাউকেই মাঠে দেখা যাচ্ছে না।

এ পরিস্থিতিতে যুবদলের সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলালকে কেন্দ্রীয় কোনো গুরুত্বপূর্ণ পদে নিয়ে যাওয়া হতে পারে বলেও শোনা যাচ্ছে।

এ সিদ্ধান্ত দলের প্রধানের কাছ থেকে আসবে বলে সূত্র জানায়।

সূত্র মতে, সংগঠনের নেতা নাসির উদ্দিন আহমেদ পিন্টু, কামরুজ্জামান রতন, সাইফুল আলম নীরব, খায়রুল কবির খোকন, অ্যাডভোকেট আবদুস সালামসহ আটজনের তালিকা করা হয়েছে। চেয়ারপারসনের স্নেহভাজন বিএনপির এক দায়িত্বশীল নেতা এ তালিকা করেছেন বলে জানা গেছে।

ছাত্রদলের কমিটিতে বঞ্চিতদের স্থান

ছাত্রদলের নতুন কমিটিতে ঠাঁই না পাওয়া ছাত্রদলের নিবেদিতপ্রাণ কিছু কর্মীকে কমিটিতে অন্তর্ভুক্তির প্রক্রিয়া চলছে বলে জানা গেছে।

সূত্র জানায়, দলের বিভিন্ন কর্মসূচিতে নিজেদের সাধ্যানুযায়ী তৎপরতা দেখিয়েও কমিটির পদ প্রাপ্তিতে বঞ্চিত হয়েছেন দাবি করে দীর্ঘদিন দূরে সরে আছেন কিছু ছাত্রনেতা। ক্ষুব্ধ এ নেতাদের কমিটিতে ঢোকানোর প্রক্রিয়া চলছে বলে সূত্রের দাবি।

এসব রদবদলের অন্তরালে তারেক রহমানের প্রত্যক্ষ পরামর্শ রয়েছে বলে জানিয়েছেন লন্ডনে অবস্থানরত তারেকের ঘনিষ্ঠ সূত্র।

এ বাছাই নিয়ে এরই মধ্যে বিএনপির বিশ্বস্ত চার নেতার সঙ্গেও খালেদা জিয়ার আলোচনা হয়েছে বলেও দলের স্থায়ী কমিটির এক নেতা জানান।

অবশ্য এ বিষয়ে জানতে চাইলে দলের দফতরের দায়িত্বে নিয়োজিত যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ হটনিউজকে বলেন, এমন কোনো সিদ্ধান্তের কথা দলের পক্ষ থেকে এখনো পর্যন্ত আমাদের জানানো হয়নি। এমন কিছু হচ্ছে কি না আমার জানা নেই। যারা এ বিষয়ে বলছেন, তারা হয়তো ভিন্নভাবে জেনে থাকতে পারেন।