আন্তর্জাতিক

আদালতে গড়াল ম্যান্ডেলার পরিবারিক দ্বন্দ্ব

aaaa-sm20130630204709আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মৃত্যুর পর যেন পূর্বপুরুষদের গ্রামে সমাহিত করা হয় এমনটি মন্তব্য করেছিলেন নেলসন ম্যান্ডেলা। তবে ১৯৯৬ সালে ব্যক্ত করা ইচ্ছার পরিবর্তনও হতে পারে বলে উল্লেখও করেন তিনি।

তিন সপ্তাহ ধরে প্রিটোরিয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ম্যান্ডেলা, অবস্থা আশঙ্কাজনক। কিন্তু হয়ত কোথায় শেষ ঠিকানা হবে ম্যান্ডেলার তা এখনও নির্ধারণ হয়নি। নিজের ইচ্ছার পরিবর্তন হতে পারে বললেও গত ১৬ বছরে তেমনটি উল্লেখ করেননি ম্যান্ডেলা।

এদিকে ম্যান্ডেলার কয়েকজন আত্মীয় দেহাবশেষ উত্তোলন করে কুনুতে সমাহিত করার ইস্যু আদালত পর্যন্ত গড়িয়েছে। ম্যান্ডেলার পরিবারের একপক্ষ চাচ্ছেন, মাকগাথো, নেলসন ম্যান্ডেলার দুই মেয়ে ও অন্য দুই আত্মীয় দেহাবশেষ উত্তোলন করে কুনুতে সমাহিত করতে। কেননা কুনুতে সমাহিত হতে চেয়েছেন ম্যান্ডেলা।

কিন্তু এতে বাঁধ সেধেছেন ম্যান্ডেলার পরিবারের উত্তরাধিকারী মান্ডলা ম্যান্ডেলা। এমজোভো থেকে বাবা মাকগাথো ও অন্যান্যদের দেহাবশেষ উত্তোলনের বিপক্ষে তিনি।

মান্ডলা ম্যান্ডেলার জন্মস্থান এমভেজোতেই রাখতে চান তাদের। তার ম্যান্ডেলার সম্মানার্থে একটি জাদুঘর নির্মাণের কাজ শুরু করেছেন আফ্রিকান ন্যাশনাল কংগ্রেসের এ সংসদ সদস্য ।

এ ইস্যুর সুরাহার জন্য আদালতের স্মরণাপন্ন হয়েছেন মান্ডলার মতের বিরোধীরা। আদালত পরিবারের সদস্যদের পক্ষে রায় দিয়েছেন।

আদালত পরিবারের ওইসব সদস্যের দেহাবশেষ উত্তোলন ও পুনরায় সমাহিত করার কাজে যেন বাধা না দেন সে নির্দেশ দেয়া হয়েছে মান্ডলাকে। এমনকি আইনি কাজে যে ব্যয় হয়ে তা বহন করার নির্দেশ দেওয়‍া হয়েছে তাকে।

তবে পারিবারিক বিষয় আদালতে গড়ানোর সমালোচনা করেছেন মান্ডলা। রোববার এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, “যেভাবে আমরা এ বিষয়টি নিয়ন্ত্রণ করছি তা আমাদের প্রথাবিরোধী এবং আমার দাদা ও তার পূর্বপুরুষদের জন্য গভীর হতাশার।”

ম্যান্ডেলার অবস্থ‍া আশঙ্কাজনক হওয়া এ ইস্যুটি সমাধান খুবই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে পড়েছে। এ কারণে সম্ভবত গত সপ্তাহে বৈঠকে বসেছিলেন পরিবারের সদস্যরা।